About Yeamin Hussain

IFIC Bank (IFIC ব্যাংক) এ নিয়োগঃ
Post Name: Management Trainee
Number of Post : অজ্ঞাত
শিক্ষাগত যোগ্যতা: অনার্স, মাস্টার্স
Date Line: 03/11/2019 পর্যন্ত
** বিস্তারিত Job মেনুতি গিয়ে [Job No-102] দেখুন।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহণ কর্পোরেশন (BRTC)তে নিয়োগঃ
Post Name: বাস/ট্রাক চালক
Number of Post : 90
শিক্ষাগত যোগ্যতা: অষ্টম শ্রেণি
Date Line: 07/11/2019 পর্যন্ত
** বিস্তারিত Job মেনুতি গিয়ে [Job No-102] দেখুন।

মিলিমিশি কুজই-251
***
শিক্ষার পাশাপাশি শুদ্ধ ও সুন্দর করে কথা বলতে ও লিখতে পারা মানবিক গুনাবলীর অন্যতম। সফল মানুষদের মানবিক গুণাবলির মধ্যে রয়েছে: পরিশ্রমী, সৎ ও ব্যক্তিত্ব সম্পন্ন হওয়া, অধ্যবসায়ী হওয়া, পরিপাঠি ও গোছালো থাকা। সফল মানুষদের অন্যতম একটা গুণাবলি হলো তারা রাতে দ্রুত ঘুমাতে যান ও সকালে দ্রুত উঠেন। নিচের কোন বাক্যটি শুদ্ধ বানানে লেখা রয়েছে?
(A) আজ যা করা সম্ভব, তা আগামী কালের জন্য ফেলে রাখা যাবে না
(B) শিক্ষা গ্রহণের পাশাপাশি স্বাস্তের যত্ন নিতে হবে
(C) লবন, চর্বি, চিনি কম খাওয়া উচিৎ
***
[ বিজযী হওয়ার জন্য কুইজ অপশন থেকে কুইজের উত্তর প্রদান করতে হবে...]
----------
মিলিমিশি’তে বন্ধুদের আমন্ত্রণ জানান, কেননা মিলিমিশি’ই হবে সুস্থ্য ধারার সুন্দর একটি সোসাল নেটওয়ার্ক। এখানে আপনার পরিবার থাকবে অশালীন ও অপসংস্কৃতি মুক্ত।

মানুষের পেট ফেঁড়ে (নিদিষ্ট সময়ের পূর্বে) বাচ্চা বের করার পদ্ধতিকে ‘সিজার’ বলে।
---
আন্তর্জাতিক সংস্থা ‘সেভ দ্য চিলড্রেন’ তথ্য অনুযায়ী একটি দেশের সর্বোচ্চ 15শতাংশ সিজারের প্রয়োজন হতে পারে। কিন্তু বাংলাদেশে বর্তমানে প্রায় ৮৩ সিজার করা হয়। যার অধিকাংশই অপ্রয়োজনীয়।
-----
আমরা সকলেই সতর্ক/সাবধান থাকলে অপ্রয়োজনীয় সিজার থেকে মুক্তি পেতে পারি।
-----
=> সিজানে জন্ম গ্রহণ করা শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অনেক কম থাকে।
=> যে শিশু সিজারের মাধ্যমে হয়, সে জন্মের পর শাল দুধ পায় না। এমনকি কয়েকদিন থেকে সপ্তাহ পর্যন্ত ভালভাবে দুধ পায় না
=> সিজার করে একজন মাকে পঙ্গু করে দেওয়া হয়।
এছাড়া আরো অনেক প্রবলেম থাকলেও আমাদের দেশের ডাক্তারগণ শিশুর পিতা-মাতাকে ভয় দেখিয়ে টাকার লোভে সিজার করিয়ে থাকেন,
-
ভয় গুলো নিন্মরূপঃ
=> বাচ্চার পরিশন ঠিক নাই।
=> বাচ্ছা শ্বাস-প্রশাস ঠিক নাই, এখনই সিজার না করলে মা-বাচ্চার ক্ষতি হতে পারে।
=> বাচ্চা পেটের মধ্যে পায়খানা করে দিয়েছে।
=> বাচ্ছা আকারে বেশি বড় হয়ে গিয়েছে।
-
মনে রাখবেন সৃষ্টিকর্ত/প্রকৃতিক উপায়ে পেটের মধ্যে একটি বাচ্ছার শুরু থেকে জন্মের 2-3দিন পূর্ব পর্যন্ত সব কিছু ঠিক রাখতে পারলে, 0 থেকে একটি মানুষের আকার দিতে পারলে আর মাত্র 2-3 দিন পর স্বাভাবিকভাবেই প্রসবও দিতে পারেন।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে নিয়োগঃ
Post Name: জুনিয়র কমিশন্ড অফিসার
Number of Post : অজ্ঞাত
শিক্ষাগত যোগ্যতা: বিএ/বিএসসি/বিকম, স্নাতক/সমমান পরীক্ষায় নূন্যতম সিজিপিএ ২.০০ এবং এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় নূন্যতম জিপিএ ৩.০০ ।
Date Line: 10/11/2019 পর্যন্ত
** বিস্তারিত Job মেনুতি গিয়ে [Job No-101] দেখুন।

মানবতা মানুষদের জন্য, সন্ত্রাশীদের জন্য নয়।
***
আজও পুলিশের সাথে বন্দুক যুদ্ধে ২ রোহিঙ্গা নিহত। দিন দিনে রোহিঙ্গাদের অপরাধ বেড়েই চলেছে।
প্রধানমন্ত্রীকে আহবান রোহিঙ্গা যদি মিয়ানমান ফেরতন না নেয় বা রোহিঙ্গারা ফেরত যেতে না চায় তাহলে জাতিসংঘকে বলুন ”আমরা রোহিঙ্গা রাখতে পারবো না, এর দায়িত্ব বিশ্বকে দিন”।
***
আমাদের নিজেদের সমস্যারই অন্ত নেই, সেখানে এত সন্ত্রাশীদের জন্য মেহমানদারির প্রয়োজন নেই।

অলশ ব্যক্তিরা শক্তিশালি হলেও, জয়ী হয় না। A quick brown fox jumps over the lazy dog. এই বাক্যটিতে ইংরেজী 26টি অক্ষর সব রয়েছে। বাক্যটির অর্থ একটি বাদামি রং এর খেকশিয়াল একটি অলশ কুকুরের উপর লাফিয়ে পড়লো। সাধারণ নিয়মে কুকুর শিয়ালের উপর লাফিয়ে পড়ার কথা, কিন্তু, কুকুরটি অলশ হওয়ার কারণে শিয়াল কুকুরের উপর ঝাড়িয়ে পড়লো।

এক গ্লাস কোল্ড ড্রিংস (কোমল পানি) তে ১২ চামচ চিনি! যা স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ক্ষতিকর।

২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস কোর্সের প্রথম বর্ষে ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে। আজ মঙ্গলবার বিকেল চারটায় ফলাফল প্রকাশিত হয়।
---
ফলাফল দেখার লিংকঃ http://result.dghs.gov.bd/

রাজধানী ঢাকা শহরে আরও দুটি মেট্রোরেল হচ্ছে। এতে খরচ ধরা হয়েছে প্রায় ৯৪ হাজার কোটি টাকা। আজ মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় এই দুটি প্রকল্প পাস হয়।

নতুন দুই মেট্রোরেলের মধ্যে একটি হবে বিমানবন্দর থেকে নতুন বাজার, বাড্ডা হয়ে কমলাপুর রেলস্টেশন পর্যন্ত। এর দৈর্ঘ্য হবে ৩১ কিলোমিটার। এটি ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট বা লাইন-১ নামে পরিচিত হবে।


আরেকটি মেট্রোরেল হবে সাভারের হেমায়েতপুর থেকে আমিনবাজার, গাবতলী, মিরপুর-১, কচুক্ষেত, বনানী, গুলশান-২, নতুনবাজার হয়ে ভাটারা পর্যন্ত। এর দৈর্ঘ্য ২০ কিলোমিটার। এই রুটটি এমআরটি লাইন-৫ নামে পরিচিত হবে।

প্রথম প্রকল্পে খরচ হবে ৫২ হাজার ৫৬১ কোটি টাকা। প্রথম প্রকল্পটি শেষ হবে ২০২৬ সালের জুন মাসে। দ্বিতীয় প্রকল্পে খরচ ৪১ হাজার ২৩৮ কোটি টাকা। শেষ হবে ২০২৮ সালের ডিসেম্বর মাসে। দুটি প্রকল্পেই জাপানের সাহায্য সংস্থা জাইকা অর্থায়ন করবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলনকক্ষে একনেক সভা অনুষ্ঠিত হয়। একনেক সভা শেষে প্রকল্পগুলো সম্পর্কে সাংবাদিকদের জানান পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

নতুন মেট্রোরেল প্রকল্প সম্পর্কে এম এ মান্নান বলেন, প্রকল্পগুলোকে সড়কের সবচেয়ে বেশি ব্যয়ের প্রকল্প বলা যায়। তবে নির্মাণ শেষ হলে ঢাকা হবে বিশ্বমানের শহর। তবে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার বিষয়ে মন্ত্রী জানান, মেট্রোরেলের জন্য হাতিরঝিল যেন নষ্ট না হয়। এ ছাড়া মেট্রোরেলের কারণে ঘনবসতিপূর্ণ এলাকা হলেও কোনো ব্যাঘাত ঘটানো যাবে না।

আজকের একনেকে সব মিলিয়ে ১ লাখ ২৫ কোটি টাকার ১০টি প্রকল্প পাস হয়। একনেকে অনুমোদিত অন্য প্রকল্পগুলো হলো ১ হাজার ৪৮৫ কোটি টাকার ফেনী-নোয়াখালী জাতীয় মহাসড়কের বেগমগঞ্জ থেকে সোনাপুর পর্যন্ত চার লেনে উন্নীত করা; ৪২১ কোটি টাকার ডোমার-চিলাহাটি-ডাউলাগঞ্জ, ডোমার-জলডাকা এবং জলঢাকা-ভাদুরদরগাহ-ডিমলা জেলা মহাসড়কের মান উন্নীত করা; ৭৩১ কোটি টাকার কিশোরগঞ্জ-করিমগঞ্জ-চামড়াঘাট জেলা মহাসড়ক যথাযথ মানে উন্নীত করাসহ ছয়না-যশোদল-দৌদ্দশত বাজার সংযোগ সড়ক নির্মাণ; ১ হাজার ৭১৯ কোটি টাকার ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়ন; ১ হাজার ৮৮ কোটি টাকার ঢাকার মিরপুরের পাইকপাড়ায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য বহুতল আবাসিক ফ্ল্যাট নির্মাণ; ১২৯ কোটি টাকার ঢাকার আজিমপুরে বিচারকদের জন্য বহুতল আবাসিক ভবন নির্মাণ; ৫৮০ কোটি টাকার ইরিগেশন ম্যানেজমেন্ট ইম্প্রুভমেন্ট প্রজেক্ট এবং ৭০ কোটি টাকার জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব নিরসনে সিলেট বন বিভাগে পুনঃ বনায়ন ও অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প।

মিলিমিশি কুইজ (15/10/2019ইং):
*****
বিশ্বের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ নোবেল পুরস্কার বিজয়ীরা পান নগদ অর্থ, একটি স্বর্ণের পদক ও একটি সনদ। নগদ অর্থের পরিমান আনুমানিক ৯ কোটি ৪ লাখ টাকা (১১ লাখ ২০ হাজার ডলার)। যিনি ২০১৯ সালে রসায়নে নোবেল পুরস্কার লাভ করেছেন, তাকে লিথিয়াম আয়ন (মোবাইল ও ল্যাপটপের ব্যাটারি) ব্যাটারির জনক হিসেবে অভিহিত করা হয়, তিনি কে?
(A) আবি আহমেদ
(B) আকিরা ইয়োশিনো
(C) মাইকেল ক্রেমার
[ বিজয়ী হওয়ার জন্য কুইজ অপশন থেকে কুইজের উত্তর দিতে হবে ]
******
******
‘মিলিমিশি’তে রেফার করে স্মার্ট ফোন উপহার নিন।
*********
যারা ইতোপূর্বে ‘মিলিমিশি’তে জয়েন করেছেন, তারা অন্য ফ্রেন্ডদের আমন্ত্রণ জানান, কেননা যে ৭ জন বিজয়ী হবেন, তাদেরকে যদি কেউ রেফার করে থাকে তাহলে যিনি রেফার করেছেন, তিনি উপহার হিসেবে পাবেন আকর্ষণীয় স্মাট ফোন।
****
রেফারেল লিংকের মাধমে জয়েন করানোর জন্য এই লিংকের নির্দেশনা দেখুন https://milimishi.com/rf.php
---
[প্রথম 1000 জন জয়েন কারীদের মধ্যে থেকে লটারির মাধ্যমে 1টি স্মার্টফোন, এবং 10 হাজারের মধ্যে থেকে একটি ল্যাপটপ ও ৩টি মোবাইল সহ মোট 7জনকে পুরুষ্কার প্রদান করা হবে] (এটা সকলের জন্য উন্মুক্ত, সরাসরি/পোস্ট অফিসের মাধ্যমে পুরুষ্কার পাঠিয়ে দেওয়া হবে]

যারা পেন ড্রাইভ থেকে উইন্ডোজ দিয়ে চান তাদের জন্য উইন্ডোজ-7 iso ফাইল ডাউনলোড করার লিংক। https://softlay.net/operating-system/windows-7-ultimate-iso-download.html (পেন ড্রাইন কিন্তু রিবুটেবল করে নিতে হবে, যারা নতুন তারা ইউটিউব ভিডিও দেখে নিন)

আমার দৃষ্টিকোন থেকে সম্রাট বড় ধরনের কোন অপরাধী নয় !!!
হ্যা, সবাই চমকে উঠলেও এটাই সত্য, কেননা সে একটি খেলার (ক্যাসিনো) আয়োজন করেছে, আর সবাই বুঝে শুনেই এই খেলা খেলতে গিয়েছে... যার ভাগ্য ভাল ছিলো সে জিতেছি, তার ভাগ্য খারাপ সে হেরেছে...
****
আমরার দৃষ্টিকোন থেকে অপরাধী তারা, যারা সরকারী ছত্রছায়ায় থেকে
# রাজনীতেকে ব্যাবহার করে জোর করে মানুষের সম্পদ হরণ করছে, সন্ত্রাশী করছে...
# যারা পর্দার আড়ালে থেকে মানুষ খুন করছে,
# জনগনের সাথে প্রতারণা করছে।
# নিয়োগ বাণিজ্য করে দেশের মেধাবীদের ঠকাচ্ছে।
# যারা সরকারী অফিস/সেবা কেন্দ্রগুলোকে হয়রানী কেন্দ্র তৈরী করে লক্ষ লক্ষ টাকা ঘুষ বানিজ্য করে জনগণকে বিষিয়ে তুলেছে।
***
সরকার ও প্রশাসনকে আহবান প্রকৃত অপরাধীদের ধরুন.. যাদের ধরলে জনগণ উপকৃত হবে, দেশ মুক্তি পাবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকে নিয়োগঃ (আবেদন করতে কোন টাকা লাগবে না)
Post Name: CCTV Operator
Number of Post : 26
বেতনঃ BDT 9,300/-22,490/-
শিক্ষাগত যোগ্যতা: Minimum Graduation (অনার্স), অথবা Equivalent Degree with Diploma(at least 06 months) in Computer Science/Short Courses in Hardware and Software.
Date Line: 31/10/2019
** বিস্তারিত Job মেনু থেকে [Job No-99] দেখুন।

এবার বিপিএলে বেশ কিছু নতুনত্ব দেখা যাবে। কিছু বিষয় বাধ্যতামূলক করে দিচ্ছে বিসিবি। আয়োজকেরা বলছেন, প্রায় ৪০০ বিদেশি ক্রিকেটার বিপিএল খেলতে আগ্রহী।

বিসিবির সঙ্গে চুক্তি নবায়নের আগেই ঢাকা ডায়নামাইটস ভিড়িয়েছিল এউইন মরগানকে। শেন ওয়াটনসনকে খুলনা টাইটানস। রাজশাহী কিংস নিয়েছিল জেপি ডুমিনিকে। এবার বিপিএল যেহেতু ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক হবে না, এই তারকা ক্রিকেটারদের উল্লিখিত দলগুলোয় তাই খেলার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।


মরগান-ওয়াটসনরা নতুন নিয়মে হওয়া বিপিএলে শেষমেশ আসবেন কিনা, এখনই বলার উপায় নেই। তবে আয়োজকেরা বলছেন, প্রায় ৪০০ বিদেশি ক্রিকেটার বিপিএল খেলতে আগ্রহী। বিসিবির পরিচালক ও বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্য মাহবুব আনাম আজ বিকেলে সাংবাদিকদের বললেন, ‘ড্রাফটের আগেই আমরা বিদেশি খেলোয়াড়দের অন্তর্ভুক্ত করছি। এর মধ্যে চার শর কাছাকাছি খেলোয়াড় নিবন্ধন করেছে। এর বাইরেও যদি বিদেশি খেলোয়াড় নিতে হয় দলের পৃষ্ঠপোষকেরা নিজ খরচে দলে অন্তর্ভুক্ত করতে পারবে।’

তা-ই নয়, বিদেশি যে পেসাররা খেলবেন তাদের ঘণ্টায় ১৪০ কিলোমিটার গতিতে বোলিং করাও বাধ্যতামূলক করতে চায় বিসিবি। মাহবুব আনাম বললেন, ‘ যে বিদেশি ফাস্ট বোলাররা অন্তত ঘণ্টায় ১৪০ কিলোমিটার গতিতে বোলিং করতে পারে তাদের যেন দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। যেহেতু আমরা বিসিবির টাকা ক্রিকেটের উন্নয়নে ব্যয় করতে চাই, এ কারণে এসব বাধ্যবাধকতা থাকবে।’

মাহবুব দাবি করলেন, শুধু বিদেশি খেলোয়াড়ই নন; বিপিএলে কাজ করতে চান অনেক নামীদামি বিদেশি কোচও, ‘আমরা প্রতিটা দলে আন্তর্জাতিক কোচ দেব। যে যে কোচ বিপিএলে অন্তর্ভুক্ত হতে আগ্রহী, তারা নাম পাঠিয়েছে। আমরা একই সঙ্গে বিদেশি ফিজিও, ট্রেনার এবং খেলোয়াড় অন্তর্ভুক্ত করতে যাচ্ছি।’

প্রধান কোচদের সবাই যদি বিদেশি হন, স্থানীয় কোচরা তাহলে কী করবেন? বিপিএলের গত চার পর্বের তিনটিই কিন্তু জিতিয়েছেন স্থানীয় কোচেরা। মোহাম্মদ সালাউদ্দীন কুমিল্লাকে দুবার (২০১৫ ও ২০১৮) শিরোপা জিতিয়েছেন। ২০১৬ বিপিএলে ঢাকা জিতেছে খালেদ মাহমুদের তত্ত্বাবধানে। স্থানীয় কোচদের কেউ এবার প্রধান কোচ হবেন কি না জানা না গেলেও বিসিবি একজন করে ‘টিম ডিরেক্টর’ ঠিক করে দেবে। দলের পরিচালক হতে পারেন কোচ, সংগঠক কিংবা সাবেক ক্রিকেটারদের কেউ।

বাংলাদেশ দলে লেগ স্পিনারের হাহাকার দূর করতে এবার প্রতিটি একাদশে একজন রিস্ট স্পিনার খেলতে বাধ্য করা হবে বলে জানালেন মাহবুব, ‘ফ্র্যাঞ্চাইজিরা যখন আসে, তখন তাদের লক্ষ্যই থাকে জয়। এতে আমাদের জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা বেশ কিছু জায়গায় পিছিয়ে পড়েছে। বাংলাদেশ দলের ম্যানেজমেন্ট থেকে পরামর্শ এসেছে যে আমাদের লেগ স্পিনার দরকার। (বিপিএলের) প্রতিটি দলে একজন লেগ স্পিনার খেলাতেই হবে এবং তাকে বাধ্যতামূলকভাবে ৪ ওভার বোলিং করাতে হবে।’

বিপিএলের উইকেট নিয়ে প্রশ্ন থেকে যায় প্রতিবারই। এবার উইকেট টি-টোয়েন্টি উপযোগী হবে তো? মাহবুব আনাম আশ্বাস দিচ্ছেন, খাঁটি ২০ ওভারের ম্যাচ-বান্ধব উইকেটই হবে এবার।

কে এগিযে????
দুজনেই একসাথে HSC পরীক্ষা দিয়েছিল.. HSC পরীক্ষার পর বোকার বিয়ে হয়ে যায়.. আর বুদ্ধিমতি মেয়েটি ফ্যামিলির প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিল প্রতিষ্ঠিত হয়ে বিয়ে করবে বলে.. 7 বছর পর এখন বোকার মেয়ে ১শ্রেণিতে পড়ে, আর বুদ্ধিমতি সেলস্ ম্যানে চাকরি করে ও বোকার মেয়েকে প্রাইভেট পড়ায়.. ভাল চাকরী খুজতেছে প্রতিষ্ঠিত হয়ে বিয়ে করবে বলে....। এখন তার প্রতিষ্ঠিত হতেই হবে, কেননা বাংলার সমাজ বেশি বয়সি মেয়েকে বিয়ে করে না.. প্রতিষ্ঠিত বা টাকা না থাকলে।

সকালের নাস্তায় বেশির ভাগ মানুষই অনায়াসে ঘরের কাছের দোকান থেকে নানরুটি কিংবা পরোটা দিয়ে সকাল-বিকালের নাস্তার পর্ব সেরে ফেলেন। কিন্তু এই রুটি-পরোটা এত নরম কেন? কারণ, এতে ব্যবহার করা হচ্ছে কৃষিকাজে ব্যবহৃত অজৈব সারের এক ধরনের মিশ্রণ।

হোটেল-রেস্তোরাঁয় কর্মীর ভাষায় এর নাম ‘সাল্টু’। এটি পাওয়া যায় মশলার দোকানে। অ্যামোনিয়াম সালফেট এবং ইউরিয়া সার একসঙ্গে মিশিয়ে গুঁড়ো করে এই সাল্টু বানানো হচ্ছে। সরকারি সংস্থা নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ ইতোমধ্যে এই রাসায়নিকের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠিয়েছে।

সাল্টু নামক এই সার রুটি-পরোটা তৈরির আগে আটার খামিতে মিশিয়ে রাখা হয়। তারপর ভাজা হয় রুটি কিংবা পরোটা। এতে পরোটার ওপরের অংশ মচমচে হলেও ভেতরটা হয় নরম। একই উপায়ে বানানো হয় নানরুটি। রাজধানীর বিভিন্ন হোটেল-রেস্তোরাঁতে এই পদ্ধতি অনুসরণ করা হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী হয়তো একটা কথা না বুঝেই বলেছিল, বা এর ব্যাখ্যা কি হবে তা তাৎক্ষনিকভাবে তার জানা ছিল না। কথাটা হলো
”ধর্ম যার যার,
উৎসব সবার”
---
তিনি হয়তো কথাটা সম্প্রীতি বুঝানোর জন্য বলেছিলেন। কিন্তু এর আক্ষরিক/পারিভাষিক ব্যাখ্যা করলে এমন হয় যে, মুসলমানরা পুজায় সময়, পুজায় গিয়ে উৎসব করবে, আর হিন্দুরা ঈদের সময়, ঈদ গাহে এসে উৎসব করবে। যা কোন ধর্মই সমার্থন করে না। তিনি প্রধানমন্ত্রী হিসাবে তার দায়িত্ব সকল ধর্মের নিরাপত্তা দেয়া, এবং রাজনৈকিত কারণে সকল ধর্মের উৎসবে যাওয়া.. কিন্তু এটা সবার জন্য প্রয়োজ্য নহে...
অতএব, আমি প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে তার কথাটা একটু এডিট করে বললো
“ধর্ম যার যার,
দেশটা সবার”
************

বিনা খরচে কাজের ভিসা নিয়ে জাপান যেতে পারবেন বাংলাদেশি কর্মীরা। এজন্য তাদেরকে কাজে ও জাপানি ভাষায় দক্ষ হতে হবে। শিক্ষাগত যোগ্যতা এখানে কোন বাধাই হবেনা বলে জানিয়েছে রিক্রুটিং এজেন্টদের সংগঠন বায়রা।

স্বাধীনতা পেয়েছি ১৯৭১ এ
এখন ২০১৯;
৪৮ বছর পেরিয়েও
আমরা এখানে কেন?????
আর কত দেরী??? এখনই সময় জেগে উঠ সবাই
দূর্নীতির বিরুদ্ধে, অন্যায়ের বিরুদ্ধে....
---
প্রধানমন্ত্রী আপনি জীবত থাকতে, ওদের শেকড় সহ উপড়ে ফেলুন...

@ওবায়দুল কাদের
ক্যাসিনো চালু থাকলে সেয়ার মার্কেট কখনোই উঠে দাড়াতে পারবে না। তাই, নীতিমালা তৈরী করে অবৈধ্য ক্যাসিনোকে কখনো যেন বৈধ্য করা না হয়।
-ইয়ামিন হুসাইন।

ক্যাসিনোর সাথে সাথে বঙ্গকন্যাকে আরো কিছু বিষয় নজর দেওয়ার আহবান করছি!
******
1. দেশে পোশাক শিল্পের করুন অবস্থা চলছে,
পোশাক শিল্পের সাথে জড়িত প্রতিষ্ঠান (গার্মেন্টস্/বায়িং হাউজ) গুলোতে নতুন নিয়োগ নেই, চলছে কর্মি ছাটাই।
ভবিষ্যৎ বিপদের আসঙ্গা!!!
---
2. তুলার দাম বেশি, সুতার দাম কম।
কৃষকরা তামাক চাষে ব্যাস্ত, ধান চাষে লাভ কম, তুলা চাষে কোন পদক্ষেপ নেই।
---
টাকা কিন্তু খাওয়া যায় না। দূর্ভিক্ষের সময় শিল্পপতিদের কাছে কোটি কোটি টাকা থাকবে কিন্তু খাবার থাকবে না, টাকা আর সিগারেট খেয়ে বাঁচতে হবে।
---
বাংলাদেশে পরিবর্তি যদি দূর্ভিক্ষ হয়, তাহলে তখন টাকা মূল্য শুন্য হয়ে পড়বে।
**********
[2 নং অপশনটি সবাই বুঝবেন না, এ লাইনগুলি দূরদৃষ্টি সম্পন্নদের জন্য ]

মোবাইল অপারেটররা অস্তিত্ব রক্ষার যুদ্ধে!
---
এক সময়ের জয় জয়াকার মোবাইল অপাটরগুলো এখন অস্তিত রক্ষায় ব্যাস্ত।
ইতোমধ্যে সিটিসেল বন্ধ হয়ে গিয়েছে, অন্যান্য অপারেটররা তাদের খরচ কমিয়ে এনেছে, কর্মি/জনবল হ্রাস করতে শুরু করেছে। মানুষ কখনো মোবাইল সীম ব্যবহার ত্যাগ করতে পারবে না, তবে, সোসাল নেটওয়ার্ক, বিভিন্ন ভিডিও চ্যাটিং এ্যাপ এর কারণে মোবাইল অপারেটর ব্যাবহার করা কমে যাবে।
---
(অন্যদিকে হ্যান্ড সেট বিক্রয়ের ব্যাবসা ক্রমান্বয়ে বেড়েই চলেছে...)
--
এর অন্যতম কারণ ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট (ওয়াইফাই) নয়, অন্যতম কারণ হলো যুগের সাথে তাদের ডাটা (ইন্টারনেট) প্যাকেজ গুলো সমন্বয় হীনতা, যদি ডাটা প্যাকেজ গুলো ব্রডব্যান্ড এর সাথে তাল মিলিয়ে আনলিমিটেড ইন্টারনেট সেবা কম দামে প্রদান করতে পারে তাহলে হয়তো তাদের এই অস্থিত্ব রক্ষার যুদ্ধে নামতে হতো না।
*********

গাজীপুরের, ধিরাস্রম গ্রামে #মিনিস্টার_টিভি_ফ্যাক্টরিতে ভয়াবহ আগুন।

আযান শোনার পর কথা বলা বন্ধ করে দেয় সালমান খান

বাইক রাইডার (উবার/পাঠাও) যাত্রীদের যে হেলমেট দেন, তা শুধুই ট্রাফিক আইন থেকে বাচাবে কিন্তু, এক্সিডেন্ট হলে আঘাত থেকে রক্ষা করবে না। সম্পূর্ণ মাথা ঢেকে থাকে এমন হেলমেট ব্যবহার করা বাধ্যতা মূলক করার জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন রইল।

কোন ক্যাপশন নেই

এটা কোন অল্প আয়ের সৎ বাবার স্যান্ডেল,সংসারটাকে ভালো রাখার চিন্তায় নিজেকে সাজাতে ভুলে গেছে,

যারা কম্পিউটার ব্যবহারের সময় অপটিক্যাল মাউস ব্যবহার করেন, তাদের জন্য দু:সংবাদ। তারা অপটিক্যাল মাউস পরিবর্তন করে এখনই বল মাউস/অন্য কোন বিকল্প ব্যবহার শুরু করুন।
--
দীর্ঘদিন অপটিক্যাল মাউস ব্যবহারের ফালে আঙ্গুলের হাড়ে ক্যান্সার হতে পারে।
এটা এতদিন কোন গবেষণায় কেউ প্রকাশ করেনি... এমনকি চায়নার মাউস উৎপাদনকারী কোম্পানী গুলো এগুলা জানা সত্বেও অপ্রকাশিত রেখেছে...।

---
আমি বিগত 1 বছর ধরে আমি বিষয়টি বুঝতে পারলেও কোন প্রমাণের অভাবে কাউকে জানাতে পারিনি, নিজ অফিসরুমে ভিভিন্ন পরিক্ষা নিরিক্ষা করে এর ক্ষতিকর প্রভাব জানতে সক্ষম হলাম, তবুও কাউকে বলতে পারিনি, যদি গুজব হয়। এরপর ইন্টারনেটে বার বার সার্চ দিয়েও কোন তথ্য পাচ্ছিলাম না। অত:পর আবিষ্কার করার পর কৌতুহল জাগলো যে, HOW (বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা) তার প্রতিষ্ঠানে অপটিক্যাল মাউস ব্যবহার করেন কি না; পরে জানতে পারলাম,
---
বর্তমানে HOW (বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা) ও CNN তাদের অফিসের সব মাউস পরিবর্তন করেছে।

****
যারা দীর্ঘক্ষণ কম্পিউটার ব্যবহার করেন তাদের জন্য কিচু পরামর্শ
১। চোখ ও মস্তিষ্কের ক্ষতি এড়াতে বেশি বেশি পুষ্টিকর খাবার খাবেন।
২। কিছুক্ষণ পর পর বিরতি নিবেন।
*৩। যথাসম্ভব অপটিক্যাল মাউস এড়িয়ে চলবেন।
৪। ইন্টারনেট মডেম ব্যবহার করলে USB ক্যাবল লাগিয়ে শরীরের নিকট থেকে দূরে রাখবেন।
৫। বেশিক্ষণ হেডফোন কখনোর ব্যবহার কবেন না। প্রয়োজনে সাউন্ডবক্স ব্যবহার করুন।
৬। স্কিনের ব্রাইটনেস কমিয়ে রাখুন।
****
-ইয়ামিন হুসাইন।
ক্ষুদে প্রযুক্তিবিদ,
www.ictsky.com

রাজনীতিতে আসছেন প্রধানমন্ত্রী কন্যা পুতুল

লোকটি কে জানেন?

ছবিটির বেশ কয়েকটি ব্যাপার লক্ষ্যনীয়।
*** তার মাথার টিকিটি দেয়ালের সঙ্গে বাঁধা।
*** চেয়ারের হেলান দেয়ার অংশটি ভাঙ্গা।
*** তার টেবিলে অতিরিক্ত বইয়ের স্তুপ নেই।
*** দরজা বন্ধ।

তিনি একান্ত মনোনিবেশ সহকারে পড়ছেন। তার ব্যাপারে জনশ্রুতি আছে যে, তিনি এক বই দুইবার পড়তেননা।

♦তিনি টিকিটি বেঁধে রেখেছেন কারন এটা হাওয়ার দুলুনীতে পড়ার মনোযোগ নষ্ট করে। আর ঝিমুনি আসলে এটাতে টান লেগে ঝিমুনি ছুটে যাবে।

♦তিনি চেয়ারের হেলান দেয়ার অংশটা ভেঙ্গে ফেলেছেন কারন এতে হেলান দিলে তাকে আলস্য ঘিরে ধরবে।

♦তিনি অতিরিক্ত বই টেবিলে রাখেননি কারণ তিনি চাননা যেটা পড়ছেন সেখান থেকে তার মনোযোগ অন্যদিকে ছুটে যাক।

আমাদের বর্তমান প্রজন্ম খেলতে খেলতে পড়ে। টিভি দেখতে দেখতে পড়ে। খেতে খেতে পড়ে। পড়া লেখায় জ্ঞান অর্জনের বিষয়টা এখন আর নেই। এটা নেহাত টাইম পাস। পড়ার জন্যই পড়া। তাই পরীক্ষার আগে আমাদের প্রজন্ম পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস হওয়ার দিকে তাকিয়ে থাকে। টাকা দিয়ে প্রশ্ন কেনে। ডিজিটাল পদ্ধতিতে নকল করে।
অথচ একটু কষ্ট করলে তার নকল আর প্রশ্ন ফাঁসের দিকে তাকাতে হতোনা।
আমাদের নকল করে পাস করা প্রজন্ম চাকরী পায়না। কারন, ইন্টারভিয়ুতে টেকার মত জ্ঞান তাদের নেই। যাদের মামা খালুর জোর আছে তাদের ব্যাপার আলাদা।

ছবির মানুষটি আর কেউ নয়। প্রবাদপ্রতিম পন্ডিত ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর।

অবশেষে পৃবিথীর সব চেয়ে দ্রুত সময়ে টাকা দিগুণ করার পদ্ধতিটি আবিষ্কার করলাম...!!
পদ্ধতিঃ প্রথমে একটি আয়না নিন.. অত:পর আপনার টাকাগুলো তার সামনে রাখুন.. ব্যাস ঝটপট আপনার টাকা দ্বিগুণ হলে গেল....!!
✈️ নোবেল পাঠানোর ঠিকানাঃ (বিমান থেকে মেনে ফোন দিলেই আমি চলে আসবো)

নিয়মিত লেবু খাবেন যে কারণে
১। লেবুতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি থাকে। একে অ্যাসকরবিক অ্যাসিডও বলা হয়। লেবুর রস কোলাগেন তৈরিতে সাহায্য করে। চামড়ায় ভাঁজ পড়া থেকে রক্ষা করে এই কোলাগেন। বয়সের ছাপ পড়তে দেয় না এই কোলাগেন।

২। ভিটামিন বি কমপ্লেক্সে থাকা থিয়ামিন ও রিবোফ্লাবিন শরীরে এনার্জি তৈরি করে। শরীরে কোষের বৃদ্ধি ও কোষকে কার্যক্ষম করে তুলতে সাহায্য করে লেবুর রস।

৩। খাবারে থাকা সালমোনেলা জীবাণুকে মারতে সাহায্য করে লেবুর রস। এই লেবুর রসের সঙ্গে অল্প ভিনিগার মিশিয়ে বাথরুমে ঢাললে ১৫ মিনিটে তা পরিষ্কার হয়ে যায়।

৪। লেবুতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীরে ক্যানসার হওয়া থেকে রক্ষা করতে পারে। লিভার, হাড়, স্টমাক, ব্রেস্ট ও কোলন ক্যানসার থেকে রক্ষা করে লেবুর রসের অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট।

৫। হার্টের রোগ সারাতেও কার্যকরী লেবুর রসে থাকা ফ্ল্যাভানয়েডস। শরীরের রক্ত থেকে ফ্যাট ও মিষ্টি দূর করতে সাহায্য করে এটি।
৬। মাড়ি থেকে রক্ত পরা, ফুলে যাওয়া এমন নানা কাজে আসে লেবুর রস। লেবুতে থাকা ভিটামিন সি দাঁতের মাড়িকে রক্ষা করে।

বাংলাদেশে গৃহযুদ্ধ শুরু হবে!!!!!
আমরা সবাই তো বাঙ্গালি ছিলাম..
কিন্তু এখন হিন্দু-মুসলিম ভাগ করে গৃহযুদ্ধ করার প্রয়োজন কি?
সৃষ্টিকর্তার দৃষ্টিতে সবাই সমান, তিনি সবাইকে সমানভাবে লালন পালন করেন, তাহলে আমাদের এত সমস্যা কোথায়? যার ধর্ম সে পালন করবে, কোন ধর্মেই তো নিজের ধর্ম অন্যের উপর চাপিয়ে দিতে বলা হয়নি। পরকালে/মৃত্যুর পরে যার যার বিশ্বাস অনুযায়ী সে সে কর্মফল পাবে। পৃথিবীতে হানাহানি করে অশান্তি করে লাভ কি? পৃথিবীর কোন ধর্মগ্রন্থে কি অন্য ধর্মের উপর জোর করে নিজের ধর্ম চাপিয়ে দিতে বলা হয়েছে?
*****
হিন্দু উগ্রবাদি, মুসলিম উগ্রবাদি সবাইকে এখনই দমন করতে হবে, নয়তো খুবি শ্রিঘ্রই বাংলাদেশে গৃহযুদ্ধ শুরু হবে।

‘ডেঙ্গু ’ স্প্যানিশ শব্দ। যার অর্থ হাড়ভাঙা জ্বর। তবে স্পেনে শব্দটি এসেছে পূর্ব আফ্রিকার সোহাইলি আদিবাসীদের কাছ থেকে। তাদের বিশ্বাস ছিল ‘খারাপ আত্মার সংস্পর্শে হাড়গোড় ভাঙার ব্যথাঅলা’ এ জ্বর হয়।
১৯৫২ সালে আফ্রিকাতে দেখা যায়। পরবর্তীতে এশিয়ার বিভিন্ন দেশ যেমন- ভারত,শ্রীলংকা, থাইল্যান্ড, মিয়ানমার এবং ইন্দোনেশিয়াতে এটি বিস্তার লাভ করে। বাংলাদেশে ২০০০ সালে প্রথম এডিসবাহিত ডেঙ্গু রোগীর সন্ধান পাওয়া যায়।

হেরে গিয়ে আমি জিতে যেতে চাই..

অনলাইন ফোরামে নিজের চাহিদা লিখে পাত্র চাই বিজ্ঞাপন দিয়েছিলেন পূজা চৌহান নামে পঁচিশ বছর বয়সের এক যুবতী। যুবতীর পোস্টটি পড়ে উত্তর দিলেন স্বয়ং ধনকুবের মুকেশ আম্বানি। ছোট্ট ওই পোস্টেই মুকেশ বুঝিয়ে দিলেন, কেন তিনি ভারতের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি।

মুকেশ আম্বানি ও জনৈক পূজা চৌহানের সেই পোস্ট নিয়ে এখন জোর চর্চা অনলাইন দুনিয়ায়। কী রয়েছে পোস্টটিতে?

পূজা চৌহান লিখছেন,

আমি এই বছর ২৫ বছরে পা দেব। খুবই সুন্দরী। স্টাইলিশ, রুচিশীল। আমি এমন একজন স্বামী চাই, যাঁর বার্ষিক বেতন হবে ১০০ কোটি বা তার বেশি। আপনি হয়তো বলবেন, আমি একটু বেশিই উচ্চাকাঙ্ক্ষী। কিন্তু বর্তমানে বার্ষিক ২ কোটি টাকা বেতনে একেবারেই মধ্যবিত্তের মতো জীবনযাপন করতে হয়। সেদিক থেকে আমার চাহিদা একেবারেই বেশি নয়। এই ফোরামে এমন কেউ আছেন, যাঁর বার্ষিক বেতন ১০০ কোটি টাকা? তাঁরা কি সবাই বিবাহিত?

কেন আপনাকে আমি বিয়ে করব? এখনও পর্যন্ত আমি যতগুলো ডেটে গিয়েছি, তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি বেতনের পুরুষটির বেতন ছিল বার্ষিক ৫০ কোটি টাকা। অতএব আমি ৫০ কোটি টাকার পর থেকেই ভাবছি। তার কারণ কেউ যদি নিউ ইয়র্কের সবচেয়ে অভিজাত এলাকায় বসবাস করেন, তাহলে বার্ষিক ৫০ কোটি টাকা বেতন একেবারেই যথেষ্ট নয়। আমি কিছু প্রশ্ন করছি।

কেন সব ধনী ব্যক্তিদের স্ত্রীরা দেখতে মোটামুটি মানের হয়? আমার কিছু বান্ধবী আছে, তারা দেখতে খুব একটা ভালো নয়, কিন্তু তাদের বিয়ে হয়েছে ধনী ব্যক্তিদের সঙ্গে। ধনী ব্যক্তিদের উদ্দেশ্যে আমার প্রশ্ন, আপনি কী দেখে সিদ্ধান্ত নেন, যে এই মহিলা আমার স্ত্রী হবেন, আর ইনি গার্লফ্রেন্ড?

ওই ফোরামটিতে রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের কর্ণধার মুকেশ আম্বানি রয়েছেন। তিনি পোস্টটি দেখে উত্তর দেন। বুদ্ধিদীপ্ত সেই উত্তরটি হল---

প্রিয় পূজা,

আমি আপনার পোস্টটি খুব মন দিয়ে পড়েছি। এবং দেখলাম, আরও বহু মেয়ের আপনার মতোই প্রশ্ন রয়েছে। দয়া করে একজন পেশাদার লগ্নিকারী হিসেবে আপনার প্রশ্নগুলিকে একটু বিশ্লেষণ করতে দিন।

আমার বার্ষিক আয় ১০০ কোটি টাকার বেশি। আপনার চাহিদা মতোই। কিন্তু একজন ব্যবসায়ী হিসেবে, আপনাকে বিয়ে করা খুবই খারাপ সিদ্ধান্ত হবে। খুব সহজ উত্তর। দেখুন, আপনি চাইছেন, সৌন্দর্য ও টাকার বিনিময়। অর্থাৎ আপনাকে বিয়ে করলে একজন সুন্দরী স্ত্রী পাওয়া যাবে। তার বদলে আপনি হবেন ধনী। কিন্তু সমস্যা হল, আপনার এই যৌবন ও সৌন্দর্য একসময় শেষ হয়ে যাবে। কিন্তু আমার টাকা শেষ হবে না। বস্তুত, প্রতি বছর আমার আয় বাড়বে। কিন্তু প্রতি বছরই আপনি আরও সুন্দরী হয়ে উঠবেন না।

অতএব অর্থশাস্ত্রের নিরিখে, আমি একজন অ্যাপ্রিসিয়েশন অ্যাসেট। আর আপনি ডেপ্রিসিয়েশন অ্যাসেট। অর্থাৎ আপনার যৌবন ও রূপই যদি আপনার সম্পত্তি হয়ে থাকে, তাহলে ১০ বছর পর আপনার সম্পত্তি অনেকটাই কমে যাচ্ছে। ওয়াল স্ট্রিটে একটি প্রবাদ আছে, প্রত্যেক ট্রেডিংয়ের একটি পজিশন থাকে। আপনার সঙ্গে ডেটিং-ও একটা ট্রেডিং পজিশন। যদি ট্রেড ভ্যালু কমে যায়, তাহলে তা আমরা বিক্রি করে দিই। খামোখা দীর্ঘমেয়াদী ফেলে রেখে লাভ নেই। একই ভাবে আপনাকে বিয়ে করলেও তাই হবে। শুনতে খুব খারাপ লাগলেও সত্যি, যে কোনও সম্পত্তি, যার ডেপ্রিসিয়েশন ভ্যালু বেশি, তা বিক্রি করে দেওয়া বা লিজ দেওয়াই লাভজনক।

যে ব্যক্তির বার্ষিক আয় ১০০ কোটি টাকা, সে নিশ্চয়ই বোকা নয়। ব্যবসায়ী দৃষ্টিভঙ্গিতে আপনার সঙ্গে ডেট করাই যায়, কিন্তু বিয়ে করা যায় না। অতএব কোনও ধনীকে বিয়ে করার স্বপ্ন আপনার না দেখাই বুদ্ধিমানের। বরং নিজে ১০০ কোটি আয় করার চেষ্টা করুন। কোনও ধনীকে বোকা বানানোর চেয়ে ভালো হবে। আশা করি এই উত্তরটি আপনাকে ভাবতে সাহায্য করবে।

হিসাব করে দেখলাম !!!
সামন্য কিছু মানুষের স্বার্থ রক্ষা/লোভের জন্য সমস্ত বাংলাদেশের মানুষ ভোগান্তিতে পড়ে...
যেমনঃ
=> সিটি কর্পোরেশনের সামান্য কিছু লোকের লোভের জন্য গোটা দেশে ডেঙ্গুর প্রকোপ দেখা দিয়েছে.. ( যে মশক নিধন ঔষধ ক্রয় করা হয়েছিল, তা ভেজাল)।

=> ‘ওয়াসা’ এর সামান্য কিছু লোকের অবহেলা/লোভের জন্য গোটা ঢাকার মানুষ দূষিত পানি পান করছে / ঐ পানি ফোটাতে গিয়ে লক্ষ্য লক্ষ্য টাকার গ্যাস অপচয় হয়, সময় নষ্ট হয়, প্রতিদিন গৃহিনীদের বাড়তি কষ্ট করতে হয়।

এভাবে প্রতিটি সেক্টরে সামান্য কিছু মানুষের স্বার্থ রক্ষা/লোভের জন্য গোটা দেশ অসহায়, গোড়া দেশের মানুষ ভোগান্তির স্বিকার। ওরা আওয়ামীলীগ-বি.এন.পি নয়, ওরা স্বার্থসিদ্ধির জন্য আওয়ামী-বিএনপি ভান ধরে থাকে, ওরা রাষ্ট্রের শত্রু।
-
ওদের সংখ্য সব মিলিয়ে ১লক্ষের বেশি নয়, এই ১লক্ষ মানুষের জন্য ১৮কোটি মানুষ জিম্মি।

good nt every body.

19-Oct-2019 তারিখের কুইজ
(অংশগ্রহণ করেছেন: 3722 জন)
প্রশ্নঃ শিক্ষার পাশাপাশি শুদ্ধ ও সুন্দর করে কথা বলতে ও লিখতে পারা মানবিক গুনাবলীর অন্যতম। সফল মানুষদের মানবিক গুণাবলির মধ্যে রয়েছে: পরিশ্রমী, সৎ ও ব্যক্তিত্ব সম্পন্ন হওয়া, অধ্যবসায়ী হওয়া, পরিপাঠি ও গোছালো থাকা। সফল মানুষদের অন্যতম একটা গুণাবলি হলো তারা রাতে দ্রুত ঘুমাতে যান ও সকালে দ্রুত উঠেন। নিচের কোন বাক্যটি শুদ্ধ বানানে লেখা রয়েছে?
(A) আজ যা করা সম্ভব, তা আগামী কালের জন্য ফেলে রাখা যাবে না
(B) শিক্ষা গ্রহণের পাশাপাশি স্বাস্তের যত্ন নিতে হবে
(C) লবন, চর্বি, চিনি কম খাওয়া উচিৎ
17-Oct-2019 তারিখের কুইজ
(অংশগ্রহণ করেছেন: 4039 জন)
প্রশ্নঃ অ্যানড্রয়েড বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত স্মার্টফোন অপারেটিং সিস্টেম। গুগল এটির উন্নয়ন করছে। বর্তমানে গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে, মোবাইল ফোন থেকে নির্গত রেডিয়েশন নারী ও পুরষের সন্তান জন্মদানের ক্ষমতা কমিয়ে দেয় এবং মাত্রাধিক ব্যবহারে ক্যান্সার হওয়ার ঝুকি অনেক বেশি। অপ্রয়োজনে মোবাইল ফোন ব্যবহার করা উচিত নয়, যেমন- গেইম খেলা, বেশি মাত্রায় ইন্টারনেট ব্যবহার করা একেবারেই উচিত নয়। বর্তমানে অ্যানড্রয়েড এর আপডেট ভার্সন কোনটি? (অক্টোবর 2019 পর্যন্ত)
(A) ওরিও
(B) মার্শম্যালো
(C) পাই
15-Oct-2019 তারিখের কুইজ
(অংশগ্রহণ করেছেন: 4218 জন)
প্রশ্নঃ বিশ্বের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ নোবেল পুরস্কার বিজয়ীরা পান নগদ অর্থ, একটি স্বর্ণের পদক ও একটি সনদ। নগদ অর্থের পরিমান আনুমানিক ৯ কোটি ৪ লাখ টাকা (১১ লাখ ২০ হাজার ডলার)। যিনি ২০১৯ সালে রসায়নে নোবেল পুরস্কার লাভ করেছেন, তাকে লিথিয়াম আয়ন (মোবাইল ও ল্যাপটপের ব্যাটারি) ব্যাটারির জনক হিসেবে অভিহিত করা হয়, তিনি কে?
(A) আবি আহমেদ
(B) আকিরা ইয়োশিনো
(C) মাইকেল ক্রেমার