About বিশেষ শিরোনাম

দুর্ণীতি দমন কমিশন (দুদক) এ নিযোগঃ
Post Name: কম্পিউটার অপারেটর, অফিস সহকারী, ড্রাইভার ইত্যাদি
Number of Post : প্রায় 200টি
Qualification: স্নাতক ডিগ্রী, SSC, HSC (সমমান)
Date Line: 20/09/2019
[ বিস্তারিত Job মেনুতে দেখুন জব নং-97 ]

ডাচ বাংলা ব্যাংক এ নিয়োগঃ
Post Name: প্রবেশনারি অফিসার সহ বিভিন্ন পোস্ট
Number of Post : অজ্ঞাত
Qualification: BBA, MBA, অনার্স
Date Line: 19/09/2019
[ বিস্তারিত Job মেনুতে দেখুন জব নং-94 ]

দৈনিক যুহান্তর থেকে পাওয়া

বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় বিয়ের অনুষ্ঠানে বেপরোয়া হিজড়ারা বর কনেকে জিম্মি করে বরের বাবা হামিদের কাছ থেকে ১০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদা না দিলে তারা বাড়িঘর ভাংচুর করে।


এ সময় তাদের বাধা দিতে গিয়ে বর শাহিনুর ও বরের বাবা আবদুল হামিদ আহত হয়েছেন।

শনিবার দুপুর দেড়টার দিকে উপজেলার গাড়িদহ পশ্চিমপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, হিজড়ারা উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে বিয়ে বাড়ি, নবজাতক শিশু জন্ম নেয়া পরিবার ও বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানে গিয়ে মোটা অংকের চাঁদা দাবি করে সাধারণ মানুষদের হয়রানি করে। এর প্রতিকার না হওয়ায় দিন দিন তারা বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

এরই ধারাবাহিকতায় গত শনিবার দুপুরে উপজেলার গাড়িদহ ইউনিয়নের গাড়িদহ পশ্চিমপাড়া এলাকার আবদুল হামিদের ছেলে শাহিনুর রহমানের বিয়ে শেষে নতুন স্ত্রীকে নিয়ে বাড়িতে উঠার সময় হিজড়ারা বাড়ির প্রধান গেট ভেঙ্গে ভিতরে ঢুকে তাদের কাছ থেকে ১০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে।

চাঁদা না দেয়ায় তারা বর শাহিনুর রহমান ও তার বাবা আবদুল হামিদকে মারপিট করে এবং ঘরের জানালা ভাংচুর করে। হিজড়াদের এমন তাণ্ডব দেখে এলাকাবাসী পুলিশে খবর দিলে শেরপুর থানা পুলিশ তাদের নিয়ে আসে। তবে তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি বলে জানা গেছে।

ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে মিরপুর-৭ নম্বরের পুরো বস্তি। মাথা গোঁজার ঠাঁই হারিয়ে খোলা আকাশের নিচে দিন কাটছে বাসিন্দাদের। আগুনে সব হারিয়ে নিঃস্ব তারা। অনেকে ধ্বংস স্তূপের মধ্য থেকে খুঁজছেন কিছু অবশিষ্ট আছে কিনা। এদিকে, সরু রাস্তা ও বস্তিতে ঢোকার একটি মাত্র পথ থাকায় আগুন নেভাতে কিছুটা সময় লেগেছে বলে জানায় ফায়ার সার্ভিস। এছাড়া দাহ্য পদার্থ ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা এবং ক্রুটিপূর্ণ গ্যাস লাইনের কারণে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছে বলেও জানায় তারা।

কলকাতা থেকে লাশ হয়ে ফিরলেন মঈনুল ও তানিয়া
চোখের ডাক্তার দেখাতে গিয়ে কলকাতা থেকে লাশ হয়ে ফিরলেন দুই বাংলাদেশি। শুক্রবার মধ্যরাতে কলকাতার লাউডন স্ট্রিটের কাছে গাড়িচাপায় মৃত্যু হয় মঈনুল আলম ও তানিয়ার।

আজ (রোববার) বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোস্টে স্বজনদের কাছে তাদের মরদেহ হস্তান্তর করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী-বিএসএফ।

বেনাপোল চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন পুলিশের পরিদর্শক মাসুম বিল্লাহ জানান, সকাল সাড়ে ৮টার দিকে দুই দেশের কাগজপত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে লাশ দুটি হস্তান্তর করা হয়।

রোববার সকালে একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে দুই বাংলাদেশির মরদেহ বেনাপোল চেকপোস্টে নিয়ে আসা হয়। পরে ইমিগ্রেশনের আনুষ্ঠানিকতা সেরে অপেক্ষারত স্বজনদের কাছে তাদের কফিন বুঝিয়ে দেয়া হয়।

এ সময় কান্নায় ভেঙে পড়েন স্বজনরা। এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের সৃষ্টি হয়।

পরিদর্শক মাসুম বিল্লাহ জানান, মঈনুলের মরদেহ তার চাচাতো ভাই জিহাদ আলীর কাছে হস্তান্তর করা হয়। মঈনুল ঝিনাইদহের বুটিয়াঘাটি গ্রামের কাজী খলিলুর রহমানের ছেলে।

আর তানিয়ার মরদেহ বুঝে নেন তার চাচাতো ভাই আবু ওবায়দা শাফিন। তানিয়ার বাড়ি কুষ্টিয়ার খোকশা উপজেলার চান্দুর গ্রামে। তিনি মুন্সি আমিনুল ইসলামের মেয়ে।

নিহত কাজী মুহাম্মদ মঈনুল আলম (৩৬) ছিলেন গ্রামীণফোনের রিটেইল সাপোর্ট ম্যানেজার এবং সিটি ব্যাংকের ধানমণ্ডি শাখার সিনিয়র অফিসার পদে কর্মরত ছিলেন ফারহানা ইসলাম তানিয়া (২৮)।

আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে বলা হয়, স্থানীয় সময় শুক্রবার রাত ২টার দিকে একটি জাগুয়ার তীব্র গতিতে শেক্সপিয়র সরণি ধরে বিড়লা প্ল্যানেটোরিয়ামের দিক থেকে কলামন্দিরের দিকে যাচ্ছিল। লাউডন স্ট্রিটের কাছে সেটি একটি মার্সিডিজকে সজোরে ধাক্কা মেরে রাস্তার পাশে ট্রাফিক পুলিশের একটি পোস্টে ঢুকে পড়ে।

তুমুল বৃষ্টির মধ্যে মঈনুল, তানিয়া ওই পুলিশ পোস্টে আশ্রয় নিয়েছিলেন। গাড়িটি মঈনুল ও তানিয়াকে চাপা দেয়। রক্তাক্ত অবস্থায় তাদের হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা মঈনুল ও তানিয়াকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় অল্পের জন্য বেঁচে গেছেন মঈনুলের চাচাতো ভাই মো. শফী রহমত উল্লাহ। তবে তিনি মারাত্মক আঘাত পেয়েছেন।

আহত শফী জানান, ওই পুলিশ পোস্টে দাঁড়িয়ে তারা ট্যাক্সির জন্য অপেক্ষা করছিলেন। এ সময় হঠাৎ একটি গাড়ি উড়ে এসে তাদের ওপর পড়ে।

এদিকে এ ঘটনায় গাড়িচালককে গ্রেফতার করেছে কলকাতা পুলিশ। ঘাতকের পরিচয় কলকাতার নামি রেস্তোরাঁ আরসালানের মালিকের ছেলে পারভেজ আরসালান। দুর্ঘটনার সময় আরসালান নিজেই গাড়ি চালাচ্ছিলেন।

ঘটনার তদন্তকারী পুলিশ জানায়, দুর্ঘটনার সময় পারভেজ তার জাগুয়ারটি ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটারের বেশি গতিতে চালাচ্ছিলেন।

শনিবারই ঘাতক পারভেজকে আলিপুর আদালতে তোলা হয়েছে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার।

পত্রিকাটি জানায়, ওই দুর্ঘটনায় পুলিশ জাগুয়ারের চালকের বিরুদ্ধে প্রথমে ৩০৪এ ধারায় মামলা করেছিল। যেটি অনিচ্ছাকৃত খুনের মামলা হলেও জামিনযোগ্য ছিল। কিন্তু পারভেজকে গ্রেফতারের পর ৩০৪ ধারায় মামলা পরিবর্তন করে। এটি জামিন অযোগ্য ধারা।

চোখের চিকিৎসার জন্য মঈনুল ও তানিয়া কলকাতায় গিয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন কলকাতায় বাংলাদেশের ডেপুটি হাইকমিশন।

ভাসানচরে রোহিঙ্গা স্থানান্তরে অনিশ্চয়তা
সম্পূর্ণ বসবাসের উপযোগী করে ভাসানচর প্রস্তুত করা হলেও রোহিঙ্গাদের অনাগ্রহ ও দাতা সংস্থাগুলোর আপত্তির মুখে অনিশ্চয়তায় পড়েছে সেখানে রোহিঙ্গা স্থানান্তর কার্যক্রম।


মিয়ানমার থেকে পলিয়ে আসা প্রায় ১২ লাখ রোহিঙ্গার কেউই আপাতত কক্সবাজার ছাড়তে চাইছে না। আর নিরাপত্তা ঝুঁকির অজুহাত তুলে রোহিঙ্গাদের স্থানান্তরে মত দিচ্ছে না কিছু এনজিওসহ জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক কমিশন (ইউএনএইচসিআর)।
ফলে আড়াই হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে ভাসানচর সম্পূর্ণ বসবাসের উপযোগী করার কাজ শেষ হলেও রোহিঙ্গাদের স্থানান্তর চরম অনিশ্চয়তায় পড়েছে। এ বছরের এপ্রিলেই রোহিঙ্গাদের স্থানান্তর শুরুর কথা থাকলেও এখনও তা আলোর মুখ দেখেনি। কবে নাগাদ শুরু হবে সে বিষয়েও কিছু জানাতে পারেনি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. শাহ কামাল যুগান্তরকে বলেন, রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তরের বিষয়ে কোনো অগ্রগতি নেই। অগ্রগতি হলে আপনাদের জানানো হবে।

২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট রোহিঙ্গা অধ্যুষিত রাখাইন রাজ্যে সামরিক অভিযান শুরু হলে প্রায় সাড়ে সাত লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থী বাংলাদেশের কক্সবাজারের টেকনাফ ও উখিয়ায় পালিয়ে আসেন। আর আগে থেকে এখানে অবস্থান করা প্রায় চার লাখসহ ১২ লাখ বাড়তি মানুষ এখন উপজেলা দুটির শরণার্থী শিবিরে অস্বাস্থ্যকর ও ঝুঁকিপূর্ণ পরিবেশে বসবাস করছেন।

কক্সবাজারের ওপর চাপ কমাতে এক লাখের মতো রোহিঙ্গা স্থানান্তরের পরিকল্পনা নিয়ে গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে নোয়াখালীর ভাসানচরে ৪৫০ একর জমির ওপর আশ্রয় শিবির নির্মাণের প্রকল্প নেয় সরকার, যা বাস্তবায়নের দায়িত্ব দেয়া হয় বাংলাদেশ নৌবাহিনীকে।

সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে ২ হাজার ৩১২ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হয়, যেখানে ১ লাখ ৩০ হাজারের মতো রোহিঙ্গা বাস করতে পারবেন। নিরাপত্তার জন্য ভাসানচরে পুলিশ ক্যাম্প, নৌবাহিনীর একটি দফতর ও নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা সদস্যদের জন্য ভবন নির্মাণ করা হয়েছে।

রোহিঙ্গাদের জন্য ১ হাজার ৪৪০টি ব্যারাক হাউস, ১২০টি গুচ্ছগ্রাম, ১২০টি সাইক্লোন শেল্টার তৈরি করা হয়েছে। সুপেয় পানি, পয়ঃনিষ্কাশন, বিদ্যুৎ, পুকুর খনন, স্কুল ও মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে।

আয়ের ক্ষেত্র তৈরিতে ছোট দোকান, বিক্রয় কেন্দ্র পরিচালনার পাশাপাশি মহিষ, হাঁস-মুরগি পালন, কুটিরশিল্প, অভ্যন্তরীণ জলাশয়ে মাছ চাষের ব্যবস্থা করা হয়েছে। নির্মাণ করা হয়েছে দুটি হেলিপ্যাডও।
সবমিলে সম্পূর্ণ বসবাসের উপযোগী করে প্রস্তুত করা হলেও ভাসানচরে যেতে আপত্তি তুলেছেন রোহিঙ্গারা। এ বছরের ১৫ এপ্রিল থেকে ১ লাখ রোহিঙ্গাকে সরিয়ে নেয়ার কাজ শুরু হওয়ার কথা ছিল।

এ বছরের ২৫ জানুয়ারি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন জানিয়েছিলেন, ভাসানচরে অবকাঠামো নির্মাণ কাজ শেষ হলে শিগগিরই রোহিঙ্গাদের সেখানে স্থানান্তর করা হবে। একইদিন মিয়ানমারে মানবাধিকার বিষয়ে জাতিসংঘের বিশেষ দূত ইয়াংগি লি বলেন, ভাসানচরে সাইক্লোন হলে কি পরিস্থিতি হবে সেটা না দেখে এবং দ্বীপটির সুযোগ-সুবিধা পর্যাপ্ত যাচাই না করে কোনোভাবেই তাড়াহুড়ো করে রোহিঙ্গাদের সেখানে পাঠানো উচিত হবে না।

এটা করা হলে মিয়ানমারের কাছে ভুল বার্তা দেয়া হবে। তারা মনে করবে বাংলাদেশেই রোহিঙ্গাদের জন্য দীর্ঘমেয়াদি ব্যবস্থা হয়ে যাচ্ছে, তাদের ফেরত না নিলেও চলবে। এরপর ১৩ মার্চ সচিবালয়ে আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভাপতি ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক রোহিঙ্গাদের পেছনে বিদেশি এনজিওগুলোর খরচ নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। তিনি বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্প শুরু থেকে এ পর্যন্ত বিদেশি এনজিওগুলো চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারে শুধু হোটেল ভাড়ায় ব্যয় করেছে ১৫০ কোটি টাকা।

তারা অর্থের মাত্র ২৫ ভাগ ব্যয় করে রোহিঙ্গাদের সহায়তায়। এটা খুবই দুঃখজনক। রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তরে ইউএনএইচসিআরের আপত্তির বিষয়ে তিনি বলেন, আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশ কোথায় রাখবে, এটা আমাদের নিজস্ব ব্যাপার। এক্ষেত্রে ইউএন বডির বলার কিছু নেই। তারা দেখবেন রোহিঙ্গাদের আমরা কোনো অমানবিক পরিবেশে রাখছি কিনা।
এরপরই বাংলাদেশ সফরে আসেন জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআরের সুরক্ষাবিষয়ক সহকারী হাইকমিশনার ভলকার ক্রুক। ২১ মার্চ তিনি বলেন, কক্সবাজারের ক্যাম্পগুলো অত্যন্ত ঘনবসতিপূর্ণ। এজন্য বাংলাদেশ সরকার রোহিঙ্গাদের বসবাসের জন্য যে বিকল্প ব্যবস্থা করছে তাতে আমরা সাধুবাদ জানাই।

প্রথমে যেটি নিশ্চিত করতে হবে তা হচ্ছে, যে কোনো জায়গায় রোহিঙ্গাদের স্থানান্তর স্বেচ্ছায় হতে হবে। রোহিঙ্গারা যদি যেতে চায়, সেখানে তাদের জীবিকার ব্যবস্থা সুনিশ্চিত করতে হবে। তবে অভিযোগ উঠেছে, একশ্রেণির এনজিও স্থানান্তর প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত করতে রোহিঙ্গা আশ্রয় শিবিরগুলোকে অশান্ত করতে ইন্ধন জোগাচ্ছে। রোহিঙ্গাদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে দেয়া হচ্ছে যে তাদের দ্বীপান্তর করা হচ্ছে। ফলে কক্সবাজারের ক্যাম্প ছাড়তে চাচ্ছেন না রোহিঙ্গারা।

বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলতে রাজি হননি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বশীল কোনো কর্মকর্তা। এক কর্মকর্তা বলেন, সরকার রোহিঙ্গাদের নিয়ে বড় ধরনের ফ্যাসাদে পড়েছে। ভাসানচরে স্থানান্তর নিয়ে পড়েছে উভয় সংকটে।
কারণ রোহিঙ্গাদের খাবারসহ সব ধরনের খরচের জোগান দিচ্ছে জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআরসহ আন্তর্জাতিক বিভিন্ন দাতা সংস্থা। ভৌগোলিক আর যোগাযোগ যে কারণেই হোক তারা চান না রোহিঙ্গারা কোনো দ্বীপে যাক।

কারণ রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তর করা হলে এনজিও ও আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর দফতরও সেখানে নিতে হবে। কর্মকর্তাদের ওই চরে থাকতে হবে। তাদের ছাড়তে হবে কক্সবাজারের বিলাসবহুল হোটেল-মোটেল।

ঢাকা ও চট্টগ্রামের হুটহাট বিমানযাত্রাও বন্ধ হয়ে যাবে। মূলত এসব কারণেই বিদেশি এনজিওরা রোহিঙ্গা ক্যাম্প স্থানান্তরের বিরোধিতা করছে বলে স্থানীয়দের ধারণা।

‘ছেলেধরা’ গুজব ঠেকাতে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্যদের সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আকরাম-আল-হোসেন।

সঠিক কথা বলেননি প্রিয়া সাহা: আইআরআই
হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিয়া সাহার বক্তব্যের প্রেক্ষিতে নিজেদের অবস্থান ব্যাখ্যা করেছে বিশ্বব্যাপী গণতন্ত্র প্রসারে কাজ করা যুক্তরাষ্ট্রের ইন্টারন্যাশনাল রিপাবলিকান ইন্সটিটিউট (আইআরআই)।


আইআরআই বলেছে, ওয়াশিংটনে অনুষ্ঠিত 'মিনিস্ট্রিয়াল টু অ্যাডভান্স রিলিজিয়াস ফ্রিডম' সম্মেলনে আইআরআই আমন্ত্রণ জানিয়েছিল বলে প্রিয়া সাহার বক্তব্য সম্প্রতি নজরে এসেছে। বাংলাদেশ সরকারকে একটি বিষয় স্পষ্ট করতে চায় যে, প্রিয়া সাহার যুক্তরাষ্ট্র সফরের খরচ বহন করেনি আইআরআই। প্রিয়া সাহার সঙ্গে আইআরআই কোনো কাজ করে না।

আইআরআই বিশ্বাস করে যে, প্রিয়া সাহা সম্প্রতি সাক্ষাতকারে সঠিক কথা বলেননি।
----
[[বিস্তারিত News মেনুতে দেখুন, প্রতিদিন আপডেট রাখুন....]]
নিউজ মেনুঃ https://milimishi.com/news.php

শিরোনাম-2 (সূত্র: বাংলাদেশ প্রতিদিন) তারিখ:20-Jul-2019

হরমুজ প্রণালী থেকে একটি ব্রিটিশ তেল ট্যাংকার আটক করার পর জরুরি বৈঠক করেছে ব্রিটিশ মন্ত্রিসভা। শুক্রবার রাতে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠক শেষে এক বিবৃতিতে বলা হয়, লন্ডন এ ব্যাপারে আরও বেশি তথ্য সংগ্রহ ও পুরো পরিস্থিতি মূল্যায়নের চেষ্টা করছে। খবর পার্সটুডের।...বিস্তারিত >>

শিরোনাম-1 (সূত্র: বাংলাদেশ প্রতিদিন) তারিখ:20-Jul-2019

কাজাখস্তানের এসিল জেলার একটি ছোট গ্রাম ‘কালাচি’। এই গ্রামের লোকজন চলতে চলতে, কথা বলার সময় বা কাজ করতে করতে আচমকাই ঘুমিয়ে পড়ছেন! অথচ কেউই ক্লান্ত নয়। কারও ঘুম ভাঙছে ছয়-সাত ঘণ্টা পরে, কখনও কেটে যাচ্ছে তিন-চার দিনও! এক দিন নয়, বছরের পর বছর ধরে ঘটছে এই ঘটনা।

গ্রামবাসীদের এই ঘুমিয়ে পড়াই গোটা বিশ্বকে চিনিয়েছে এই গ্রামকে। শুধু মানুষ নয়, পশু-পাখিরাও এই ঘুমের হাত থেকে রক্ষা পায়নি। ঘুম ভাঙলেও বিপত্তির শেষ নেই। থেকে যায় অনেক পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া...বিস্তারিত >>

শিরোনাম-1 (সূত্র: যুগান্তর) তারিখ:10-Jul-2019
স্মার্টফোনের এবং ট্যাবলেটগুলি এখন বাচ্চাদের ইচ্ছার তালিকায় খেলনার বিকল্প হিসাবে প্রতিস্থাপিত। স্মার্টফোন শৈশবের মস্তিস্ক বিকাশকে প্রভাবিত করে। শিশুদের শিক্ষার যে বয়স সেই বয়সে শিশুরা আশপাশের সব কিছু ভালো করে লক্ষ্য করে, অনুকরণ করে। সেগুলো করার চিন্তা করে এবং প্রয়াস চালায়।

সাম্প্রতিক সময়ে বাইরের দেশের গবেষণায় দেখা গিয়েছে, ১০ থেকে ১৩ বছরের মধ্যে ৫৬ শতাংশ শিশু স্মার্টফোনের ব্যবহার করে। আরেকটি গবেষণায় দেখা গিয়েছে, ২ থেকে ৬ বছর বয়সের বাচ্চাদের মাঝে স্মার্টফোন ব্যবহারের হার প্রায় ২৫ শতাংশ।

বোস্টন মেডিকেল সেন্টারের ড. জেনি রেডস্কি এ নিয়ে বিশেষ গবেষণা করেছেন। তিনি দেখেছেন বাবা-মা এবং সন্তানদের মধ্যে মিথস্ক্রিয়া সম্পর্কিত অভাব। তার গবেষণা চলার সময় বেশ উদ্বিগ্ন হয়েছিলেন।...বিস্তারিত >>

পর্ন ভিডিও সংরক্ষণে গ্রেফতার ২
---
কেউ মোবাইল এবং কম্পিউটারে পর্ন ভিডিও রাখবেন না।
---

[[বিস্তারিত News মেনুতে দেখুন, প্রতিদিন আপডেট রাখুন....]]
নিউজ মেনুঃ https://milimishi.com/news.php

এইচএসসি পরীক্ষার ফল ১৭ জুলাই

ভারতে ভয়াবহ বাস দুর্ঘটনা, নিহত ২৯
[[বিস্তারিত News মেনুতে দেখুন, প্রতিদিন আপডেট রাখুন....]]
নিউজ মেনুঃ https://milimishi.com/news.php

আসছে অ্যান্ড্রয়েডের বিকল্প অপারেটিং সিস্টেম ‘ফিউশা’ তথ্যপ্রযুক্তি
[[বিস্তারিত News মেনুতে দেখুন, প্রতিদিন আপডেট রাখুন....]]
নিউজ মেনুঃ https://milimishi.com/news.php

মোটরসাইকেল ২ আরোহীকে তাড়া করল বাঘ, ভিডিও ভাইরাল!
[[বিস্তারিত News মেনুতে দেখুন, প্রতিদিন আপডেট রাখুন....]]
নিউজ মেনুঃ https://milimishi.com/news.php

বাংলাদেশের যে বিষয়টি ভাবাচ্ছে ভারতকে
(‘দৈনিক যুগান্তর’ থেকে পাওয়া)
--
বিশ্বকাপে ব্যাটিংয়ে দারুণ ছন্দে আছে বাংলাদেশ। এখন পর্যন্ত ৩০০ রান তাড়া করে জয়টি টাইগারদেরই। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ৩৩০ রান করে জয় পেয়েছেন তারা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের ৩২২ রানের টার্গেটে জয়ের পাশাপাশি স্টার্ক-কামিন্সদের অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেও স্কোর বোর্ডে ৩৩৩ রান তুলেছেন লাল-সবুজ জার্সিধারীরা।

ভারতকে দারুণ ভাবাচ্ছে বিষয়টি। শীর্ষস্থানীয় ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ডেকান ক্রনিক্যাল জানিয়েছে, তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, লিটন দাসদের নিয়ে ভাবছে ভারতীয় দল। বাংলাদেশের বিপক্ষে একাদশে দুটি পরিবর্তন আনতে পারে তারা। বাদ পড়তে পারেন কেদার যাদব ও যুগবেন্দ্র চাহাল। তাদের জায়গায় ঢুকতে পারেন রবিন্দ্র জাদেজা ও ভুবনেশ্বর কুমার।

বাংলাদেশের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনআপের কথা চিন্তা করেই এ সিদ্ধান্তের পথে হাঁটতে পারে ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট। এর প্রবল সম্ভাবনাও আছে। কারণ সাকিব-তামিম-মুশিদের বিপক্ষে বেশি স্পিনারদের খেলানোটা ঝুঁকিপূর্ণই মনে করছেন তারা।

আজকের ম্যাচে টস অনেক গুরুত্বপূর্ণ মনে করছে ভারত। এতে জিতে প্রথমে ব্যাটিং নিতে চায় তারা। উদ্দেশ্য পরিষ্কার- বাংলাদেশের বোলিং ‘দুর্বলতা’ কাজে লাগিয়ে রানের পাহাড় গড়তে চান কোহলিরা। বিশাল সংগ্রহ গড়ে টার্গেটটিকে টাইগারদের ধরাছোঁয়ার বাইরে নিয়ে যেতে চান ওরা।

রিফাত হত্যা মামলার প্রধান আসামি সাব্বির আহমেদ নয়ন (নয়ন বন্ড) পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে। এসময় পুলিশ ও নয়ন বাহিনীর মধ্যে বন্দুকযুদ্ধে পুলিশের চার সদস্য আহত হন।

আহতরা হচ্ছেন, সহকারি পুলিশ সুপার বরগুনা সদর সার্কেল মো: শাহ্জাহান, বরগুনা সদর থানার সাব ইন্সপেক্টর মো: হাবিবুর রহমান, ডিবির সাব ইন্সপেক্টর মুনিরুজ্জামান ও পুলিশ কনস্টেবল হাবিবুর রহমান। এর মধ্যে সহকারি পুলিশ সুপার মো: শাহ্জাহান ও সাব ইনেসপেক্টর হাবিবুর রহমানকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বরগুনার পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন।
মঙ্গলবার ভোররাত সোয়া চারটার দিকে বরগুনার বুড়িরচর ইউনিয়নের পুরাকাটা ফেরিঘাট বাঁধ এলাকায় এ বন্দুক যুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নয়নের উপস্থিতি টের পেয়ে বরগুনার বুড়িরচর ইউনিয়নের পুরাকাটা ফেরিঘাট নামক এলাকায় অভিযান চালায় পুলিশ। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি ছোড়ে দুর্বৃত্তরা। এসময় পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এতে ঘটনাস্থলে রিফাত হত্যা মামলার প্রধান আসামি নয়ন বন্ড নিহত হয়। এসময় ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল ও রিফাত হত্যায় ব্যবহৃত চাপাতি উদ্ধার করা হয়েছে।
এ বিষয়ে বরগুনার পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুরাঘাটা এলাকায় পুলিশ অভিযান চালালে মজিদ মিয়ার বাড়ি নামক স্থান থেকে নয়ন বন্ড ও তার সদস্যরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি চালায়। এসময় পুলিশও পাল্টা গুলি চালালে ঘটনা স্থলে নয়ন বন্ড নিহত হয়। তার সঙ্গে থাকা অন্য সঙ্গীরা ঘটনাস্থল থেকে পিছু হটে পালিয়ে যায়। তাদেরকে ধরতে অভিযান অব্যাহত আছে।

রিফাত হত্যা মামলার প্রধান আসামি নয়ন বন্ড হত্যার ঘটনায় শুকরিয়া আদায় করে রিফাতের বাবা দুলাল শরীফ বলেন, আইন শৃংঙ্খলা বাহিনী ও মিডিয়া তৎপরতার কারণেই নয়ন বন্ড পালাতে পারেনি।

দুই চুলা ৯৭৫, এক চুলা ৯২৫ টাকা

২০ স্কুলছাত্রী ধর্ষণ: অভিযুক্ত ২ শিক্ষকের ফাঁসির দাবিতে সিদ্ধিরগঞ্জে মানববন্ধন
[[বিস্তারিত News মেনুতে দেখুন, প্রতিদিন আপডেট রাখুন....]]
নিউজ মেনুঃ https://milimishi.com/news.php

সংসদে কারা সরকারি, কারা বিরোধী দল বুঝতে পারছি না: রুমিন ফারহানা
--
২০১৯-২০ অর্থ বছরের বাজেট প্রস্তাবের ওপর আনা ছাঁটাই প্রস্তাবে স্বাস্থ্য খাতের বরাদ্দের সমালোচনা করতে গিয়ে মুখোমুখি বিতর্কে জড়িয়েছেন বিএনপি ও জাপা এমপিরা। এ সময় সরকার দলীয় এমপিরা জাপা এমপিদের বক্তব্যকে সমর্থন জানাতে দেখা যায়। বাজেটে বরাদ্দের বিরোধীতা করে স্বাস্থ্যখাত নিয়ে সমালোচনা করেছিলেন বিএনপি দলীয় এমপিরা। কিন্তু সংসদে বিএনপি এমপিদের বক্তব্যের বিরোধীতা করছিলেন সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টি-জাপা। এ নিয়ে বিএনপির এমপি ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা বলেন, এমন একটা সংসদে আছি, কোনটা সরকারি দল, কোনটা বিরোধী দল বুঝতে পারছি না।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে রবিবার সংসদের বাজেট অধিবেশনে ২০১৯-২০ অর্থ বছরের বাজেট পাসের আগে মন্ত্রণালয় ভিত্তিক বরাদ্দ ও মুঞ্জুরি দাবির ওপর আনীত ছাঁটাই প্রস্তাবের আলোচানার সময় এই বিতর্কের ঘটনা ঘটে।

মিথ্যা পরিচয় দিয়ে পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ায় যুবককে পিটিয়ে গলায় জুতার মালা ঝুলিয়ে দিয়েছেন এক গৃহবধূ। শুক্রবার বিকেলে এই চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব বর্ধমানে।


ওই যুবকের নাম সৌমিত্র। ৬ বছর আগে বিয়ে হয়েছিল তার। সৌমিত্রের বাড়িতে স্ত্রী, ৪ বছরের মেয়ে এবং মা রয়েছে। সম্প্রতি কাশীপুর গ্রামের এক গৃহবধূর সঙ্গে ফোনে তার যোগাযোগ হয়। ওই গৃহবধূটি বিউটি পার্লারে কাজ করেন। তার স্বামী পুরোহিত।

সৌমিত্র নিজেকে শিক্ষক ও অবিবাহিত পরিচয় দিয়েছিল। প্রায় একবছর ধরে গৃহবধূটির সঙ্গে সম্পর্ক ছিল তার। সৌমিত্র তাকে শর্ত দিয়েছিলেন, ১৫ ভরি সোনার গয়না এবং ১০ হাজার টাকা দিলে বিয়ে করবেন তিনি। কিন্তু সাত দিন আগে তার মতলব ধরে ফেলেন গৃহবধূ।

পরে ওই যুবককে বেঁধে লোকজনের সামনে ঝাঁটাপেটা করেন গৃহবধূ। এরপর তাকে পুলিশে ধরিয়ে দেওয়া হয়।
[সূত্র: ইত্তেফাক]

শেখ হাসিনার ট্রেনবহরে হামলার মামলা: ৩০ জনের জামিন বাতিল
--
[[বিস্তারিত News মেনুতে দেখুন, প্রতিদিন আপডেট রাখুন....]]
নিউজ মেনুঃ https://milimishi.com/news.php

আমরা বাকরুদ্ধে!!!!
----
প্রকাশ্যে স্ত্রীর সামনে স্বামীকে কুপিয়ে হত্যা, ভিডিও ভাইরাল
বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে প্রকাশ্যে স্ত্রীর সামনে তার স্বামী নেয়াজ রিফাত শরিফকে (২৫) কুপিয়ে হত্যা করেছে দুই সন্ত্রাসী। নববধূ ও এক যুবক বাধা দিয়ে সন্ত্রাসীদের হাত থেকে রক্ষা হয়নি তার। বুধবার সকালে এই ঘটনা ঘটে।

হামলার পর শরিফকে গুরুতর আহতবস্থায় প্রথমে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর আশঙ্কাকাজনক অবস্থায় তাকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। ভর্তির এক ঘণ্টা পর বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে শরিফের মৃত্যু হয়।

এদিকে, শরিফকে কুপিয়ে হত্যার একটি ভিডিও দ্রুত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে তা ভাইরাল হয়। ভিডিওটিতে দেখা যায়, সন্ত্রাসী দুই যুবক ধারালো দা দিয়ে একের পর এক কোপাতে থাকে শরিফকে। এ সময় শরিফের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি দুই সন্ত্রাসীকে বারবার প্রতিহত করার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন।
এ ঘটনাটি পুলিশের ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরার আওতায় ছিল। নিহত রিফাত শরিফের বাড়ি বরগুনা সদর উপজেলার বুড়িরচর ইউনিয়নের বড় লবণগোলা গ্রামে। তার বাবার নাম আবদুল হালিম দুলাল শরিফ। বাবা মায়ের একমাত্র ছেলে রিফাত।

এ বিষয়ে বরগুনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবীর হোসেন মাহমুদ গণমাধ্যমকে জানান, ঘটনাটি যেখানে ঘটেছে সেখানে পুলিশের সিসি ক্যামেরা রয়েছে। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে খুনিদের শনাক্ত করা গেছে। অভিযান চলছে। শিগগিরই অপরাধীদের গ্রেফতার করতে সক্ষম হবে পুলিশ।

হেরেছে ইংল্যান্ড, বেড়েছে বাংলাদেশের আশা
---
[[বিস্তারিত News মেনুতে দেখুন, প্রতিদিন আপডেট রাখুন....]]
নিউজ মেনুঃ https://milimishi.com/news.php

ইরানে মার্কিন হামলার পরিণতি কী হতে পারে?
ইত্তেফাক ডেস্ক ০১:৩৫, ২৫ জুন, ২০১৯
---------
ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। গত বৃহস্পতিবার মার্কিন ড্রোন গুলি করে ভূপাতিত করার পর পাল্টা জবাব হিসেবে ইরানের তিনটি সামরিক স্থাপনায় হামলার অনুমোদন দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু শেষ মুহূর্তে এই সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করায় কোনো হামলা হয়নি ইরানে। ট্রাম্পের দাবি, ১৫০ মানুষ মারা যাবে শুনে হামলা বন্ধের সিদ্ধান্ত নেন তিনি। ট্রাম্পের সিদ্ধান্তে এখনকার মতো যুদ্ধ এড়াতে সমর্থ হয়েছে দুই দেশ। কিন্তু এখনও অনিশ্চয়তা রয়েই গেছে। কারণ প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প শনিবারও বলেছেন যে, ইরানের বিরুদ্ধে সামরিক পদক্ষেপের সম্ভাবনা এখনো আছে।


ইরানে যুক্তরাষ্ট্রের যে কোনো হামলার পরিণতি নিয়ে চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। সিএনএনের এক বিশ্লেষণে বলা হয়েছে, হরমুজ প্রণালী বিশ্বে তেল সরবরাহের অন্যতম প্রধান রুট। দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনার কারণে ইতিমধ্যে তেলের দাম বেড়েছে। হরমুজ প্রণালী বন্ধ হয়ে গেলে তা বিশ্ব অর্থনীতিতে ক্ষতিকর প্রভাব ফেলবে। ইরানের রেভোলুশনারি গার্ডের মেজর জেনারেল হুসেন সালামির মতে, যুক্তরাষ্ট্রের অত্যাধুনিক ড্রোন ভূপাতিত করে ইরান এটা স্পষ্ট করেছে যে, বিদেশি আগ্রাসন মোকাবেলায় তারা সক্ষম। বিশ্লেষকরা বলছেন, ২০০৩ সালে ইরাকে যুদ্ধ জড়ায় যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু ইরানের সঙ্গে যদি যুক্তরাষ্ট্র যুদ্ধে জড়ায় তাহলে এর ধরন ভিন্ন হবে। দুই দেশের মধ্যে যুদ্ধ বাধলে তা সমগ্র অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়তে পারে। ইরান মধ্যপ্রাচ্যে তাদের ‘প্রক্সি’ ফোর্সকে ব্যবহার করতে পারে। এই ফোর্স তেহরানের অনেক দূর থেকে যুক্তরাষ্ট্র ও এর মিত্রদের লক্ষ্যবস্তুতে হামলা চালাতে পারে।

সিএনএনের আরেকটি বিশ্লেষণমূলক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দুই দেশের মধ্যে যুদ্ধ বাধলে তা দ্রুত নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাবে। এই অঞ্চলে প্রাণহানির সঙ্গে সঙ্গে বিশ্ব অর্থনীতি ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

বিবিসির বিশ্লেষক জোনাথন মার্কাসের মতে, ইরানে হামলা হলে তারা নিশ্চয়ই পাল্টা আঘাত হানতো। হয়তো কোনো মার্কিন জাহাজ বা বিমান আক্রান্ত হতো। ইরান উপসাগরে জাহাজ বা তেলবাহী ট্যাংকারের চলাচল বিঘ্নিত করতে মাইন, ছোট আকারের নৌকা বা সাবমেরিন দিয়ে আক্রমণ চালাতো।

তার মতে, এ যুদ্ধ হবে অসম অর্থাত্ একটি পক্ষ খুবই শক্তিশালী, অন্যপক্ষ অপেক্ষাকৃত দুর্বল। চাপের মুখে পড়লে ইরান এই সংঘাতকে ছড়িয়ে দিতে পারে। এর লক্ষ্য হবে ওয়াশিংটনকে এটা দেখানো যে, ইরানের ওপর কোনো ছোট আকারের আঘাতও পুরো মধ্যপ্রাচ্য জুড়ে যুদ্ধের আগুন ছড়িয়ে দিতে পারে।

আফগানিস্তান এবং ইরাকের অভিজ্ঞতা থেকে যুক্তরাষ্ট্র হয়তো এটা বুঝেছে যে, আধুনিক যুগে কোনো যুদ্ধে প্রচলিত অর্থে জয়ী হওয়া যায় না। প্রকৃতপক্ষে দুপক্ষই চায় কৌশলগত বিজয়। তবে সব সংঘাতেরই এমন কিছু পরিণতি হয়- যা আগেকার হিসেব-নিকেশে বোঝা যায়নি।

ইরান-যুক্তরাষ্ট্র উত্তেজনার বিষয়ে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পূর্বাভাসটি দিয়েছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ড. মাহাথির মোহাম্মদ। তার দাবি- এই উত্তেজনার জন্য উস্কানি দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। দুই দেশের মধ্যে বিরোধকে কেন্দ্র করে বিশ্বযুদ্ধের পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে। মার্কিন টিভি চ্যানেল সিএনবিসিকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে তিনি আরো বলেন, যুক্তরাষ্ট্র যুদ্ধে জড়ালে তা কেবল ইরান-আমেরিকা যুদ্ধ হিসেবে সীমাবদ্ধ থাকবে না। এটি একটি বিশ্বযুদ্ধে রূপ নেবে। এ ধরনের পরিস্থিতি ঠেকাতে বিশ্বের সব দেশকে এগিয়ে আসতে হবে।

সিলেটে যাত্রী নিয়ে ট্রেন খালে, বহু হতাহতের শঙ্কা
[[বিস্তারিত News মেনুতে দেখুন, প্রতিদিন আপডেট রাখুন....]]
নিউজ মেনুঃ http://milimishi.com/news.php

দীপিকাকেও পরিচয়পত্র দেখাতে হয়!
লিউড অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোন ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে। কয়েকদিন আগে মুম্বাইয়ে ফিরেছেন তিনি। এরপর সেখান থেকে বাবা প্রকাশ পাড়ুকোনের সঙ্গে বেঙ্গালুরুতে যাচ্ছিলেন। সেদিন আলোকচিত্রীদের ক্যামেরার ঝলকানির মধ্যে দেখা গেলো অন্যরকম একটি ঘটনা।

মুম্বাইয়ে ছত্রপতি শিবাজি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নিজের পরিচয়পত্র না দেখিয়েই ভেতরে চলে যাচ্ছিলেন দীপিকা। এ কারণে ফটকের সামনে তাকে থামান একজন নিরাপত্তাকর্মী। এরপর ৩৩ বছর বয়সী এই তারকাকে আইডি দেখাতে বলা হয়।

নিরাপত্তাকর্মীর হাবভাবে চমকে গিয়ে দীপিকা জানতে চান, ‘চাহিয়ে কেয়া?’ (আপনি কি দেখতে চান?) এরপর কিছুটা এগিয়ে চলে গেলেও ফিরে এসে ব্যাগ থেকে আইডি কার্ড বের করে দেখান তিনি। নিরাপত্তাকর্মী ভালোভাবে সেটি দেখে ফিরিয়ে দেন। এরপর ভেতরে চলে যান ‘পদ্মাবত’ তারকা।

বদলে যাচ্ছে সিম কার্ড, আসছে ই-সিম
[[বিস্তারিত News মেনুতে দেখুন, প্রতিদিন আপডেট রাখুন....]]
নিউজ মেনুঃ http://milimishi.com/news.php

ইরানে যুক্তরাষ্ট্রের সাইবার হামলা
------
[[বিস্তারিত News মেনুতে দেখুন, প্রতিদিন আপডেট রাখুন....]]
নিউজ মেনুঃ http://milimishi.com/news.php

কর্মক্ষেত্রে ভালো থাকার তাঁদের ৫ উপায়
কর্মক্ষেত্রে সফলতা পেতে আমরা কত কিছুই না করি। অনেকে ‘জান’ দিয়ে খেটেও কাঙ্ক্ষিত সাফল্য না পেয়ে হতাশায় মুষড়ে পড়েন। নিজের খামতি কোথায় খুঁজতে বসেন। ভাবেন, চাকরিটাই ছেড়ে দেবেন। কর্মক্ষেত্রে সফলতার সংক্ষিপ্ত পথ বাতলে দিতে গিয়ে ‘দুর্জনেরা’ বসকে ‘তৈলমর্দনের’ পরামর্শ দেন। তবে ভুলেও সে ফাঁদে পা দেবেন না। সাময়িকভাবে তা আপনার উন্নতিতে কিছু ভূমিকা রাখতে পারলেও হোঁচট খাওয়ার আশঙ্কা প্রায় শতভাগ। কারণ, যখন ছিটকে পড়বেন, তখন ঘুরে দাঁড়ানোর আর সুযোগ পাবেন না। বসের খেয়ালের শিকার হয়ে যেকোনো সময় কর্মজীবনের স্থায়ী সমাপ্তি ঘটতে পারে। বরং নিজের আসন পাকাপোক্ত করতে পরিশ্রম করে সফলতার শীর্ষে আরোহণ করা ব্যক্তিদের অনুসরণের চেষ্টা করুন। তাঁদের সৎ গুণের কোনো কোনোটির সঙ্গে নিজের মিল খুঁজে পেতে পারেন, সঠিক পরিচর্যার অভাবে যা এত দিন পাখা মেলতে পারেনি। তাঁদের কর্মকাণ্ডে খুঁজে পেতে পারেন সাফল্যের মন্ত্র। খুঁজে পেতে পারেন এমন কিছু, যা আপনার জন্য অনুসরণ করা কঠিন কিছু নয়।


এমন পাঁচ ক্ষেত্রের বিখ্যাত ব্যক্তিদের অনুসরণযোগ্য পাঁচটি সাফল্যমন্ত্র তুলে ধরেছে মার্কিন পডকাস্ট থ্রাইভ গ্লোবাল। জীবন থেকে দুশ্চিন্তা দূর করার লক্ষ্য নিয়ে তৈরি জীবনযাপনবিষয়ক এই ডিজিটাল মিডিয়ায় মাইক্রোসফটের সহপ্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস, মার্কিন গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব অপরাহ উইনফ্রে, মার্কিন লেখক ম্যালকম গ্ল্যাডওয়ে, যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান আমাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোস এবং সাবেক মার্কিন ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামার পাঁচটি আচরণের কথা তুলে ধরা হয়েছে। সেগুলো তুলে ধরেছেন থ্রাইভ গ্লোবালের সহকারী সম্পাদক রেবেকা ম্যুলার।


মাইক্রোসফটের সহপ্রতিষ্ঠাতা বিল গেটসঃ
বিল গেটসের মতো আশ্রয় নিন প্রকৃতির কাছে
গবেষণা বলছে, কাজের ভারে যখন নাভিশ্বাস ওঠে, তখন প্রকৃতির সান্নিধ্য আপনাকে মুক্তি দিতে পারে। প্রকৃতির সঙ্গে সময় কাটানো ব্যক্তি কর্মক্ষেত্রে কোন বিষয়ে আলোকপাত করতে হবে, তা ভালোভাবে বুঝতে পারেন। এ ব্যাপারে বিল গেটস নিজস্ব একটি রীতি মেনে চলেন। তিনি প্রতিবছর পুরো দুই সপ্তাহ সময় কাটান জঙ্গলে। প্রকৃতি থেকে তুলে নেন ‘নির্যাস’। এই রীতির নাম দিয়েছেন তিনি ‘থিং উইক’ মানে ‘ভাবনার সপ্তাহ’। সপ্তাহজুড়ে কর্মযজ্ঞ থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়ে প্রকৃতির সঙ্গে একাত্ম হন। তাঁর প্রতিদিনকার করপোরেট হালচালের মধ্যে সৃষ্টিশীল হওয়ার উদ্দীপনা পান। যেহেতু আমরা সবাই বছরের দুই সপ্তাহ দুর্গম এলাকায় বিলীন হয়ে যেতে পারি না, তাই আমরা বিল গেটসের এই পরামর্শের একটি দিক গ্রহণ করতে পারি। লম্বা ছুটি নিয়ে চলে যেতে পারি প্রকৃতির কাছে। এমনকি কাজের সময় দুপুরের খাবারের বিরতিতে চলে যেতে পারি আশপাশের পার্কে।

মার্কিন গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব অপরাহ্ উইনফ্রেঃ
অপরাহর মতো বৈঠকের আগে উদ্দেশ্য ঠিক করুন
প্রতিটি বৈঠকের আগে অপরাহ উইনফ্রে নিজেকে তিনটি প্রশ্ন করেন, ‘এই বৈঠকের লক্ষ্য কী? কোনটি গুরুত্বপূর্ণ? এতে কি কাজ হবে?’ বৈঠক শুরুর আগে এমন তিনটি বিষয় সামনে রাখেন অপরাহ। তিনি মনে করেন, বৈঠকে উপস্থিত প্রত্যেকের মধ্যে সম্ভাবনা আছে। তিনি নিজে বৈঠকের লক্ষ্যের ওপর আলোকপাত করেন, উপস্থিত অন্যদেরও তা করতে বলেন। মার্কিন গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব, অভিনেত্রী, টক শোর জনপ্রিয় উপস্থাপক অপরাহ উইনফ্রে বলেন, এভাবে নির্দিষ্ট উদ্দেশ্য বা অভিপ্রায় ঠিক করার গুণটি তাঁর পেশাগত জীবনকে শাণিত করতে সহায়তা করেছে। তাঁর এই কৌশলের সঙ্গে একমত মনোবিদেরাও। গবেষণা বলছে, অফিসের বৈঠকের আগে এবং বৈঠকের সময়ে কী করবেন বা বলবেন বা উদ্দেশ্য কী, তা আগে ভেবে রাখলে বৈঠকটি হবে ফলপ্রসূ এবং তা বিষয়বস্তুতে আলোকপাত করতে ও আলোচনাকে কার্যকরী করতে সহায়তা করবে।


মার্কিন লেখক ম্যালকম গ্ল্যাডওয়েঃ
ম্যালকমের ই-মেইল নিয়ম অনুসরণ করতে পারেন
কাজের সময়কে সুবিন্যস্ত করতে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো কোন সময়টায় আপনি ভালো কাজ করতে পারেন, তা খুঁজে বের করুন এবং সেই সময়টাকে যথাযথভাবে বাঁচিয়ে রাখুন। লেখক ম্যালকম গ্ল্যাডওয়েল এ ব্যাপারে নিজের একটি তরিকা দিয়েছেন। ম্যালকম নিউইয়র্কের দীর্ঘ সময়ের লেখক, তাঁর বই সর্বোচ্চ বিক্রির তালিকায় রয়েছে। ম্যালকম বলেন, নিজের ক্ষেত্রে তিনি ই-মেইল পড়ার সময়টাকে সেই যথাযথ সময় হিসেবে খুঁজে পেয়েছেন। এ ব্যাপারে তিনি বলেন, প্রতি ২৪ ঘণ্টায়, বিশেষ করে পরদিন ই-মেইল দেখার সময়টা তিনি কাজে সবচেয়ে ভালো আলোকপাত করতে পারেন। আপনি যদি কারও ফোন বা বার্তার জবাব না দেন, তাহলে ভুল-বোঝাবুঝি থেকে রেহাই দিতে পারে ই-মেইল। ওই ব্যক্তিদের ই-মেইল করলে তাঁরা ভুল না বুঝে আপনাকে ঠিকই বুঝে নেন। গত গ্রীষ্মে থ্রাইভ গ্লোবালের প্রতিষ্ঠাতা আরিয়ানা হাফিংটনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা বলেছিলেন। তিনি বলেছিলেন, ‘যদি প্রত্যেকে ই-মেইলে জবাব দেওয়ার ২৪ ঘণ্টার এই নিয়ম মেনে চলেন, তাহলে পৃথিবী আরও সুন্দর হতে পারে।’


যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান আমাজনের প্রতিষ্ঠাতা জেফ বেজোসঃ
জেফ বেজোসের ‘টু পিৎজা’ নিয়ম
এর আগে বলা হয়েছে, কর্মক্ষেত্রের বৈঠক সফল করতে সুনির্দিষ্ট বিষয়ে আলোকপাত করা জরুরি। তবে বেশিসংখ্যক লোকের সরব উপস্থিতিতে এমন একটি বৈঠকও কেচে যেতে পারে। ব্যাপক প্রস্তুতির দারুণ একটি বৈঠক এভাবে ভেস্তে যাওয়ার বিষয় সম্পর্কে খুব ভালো করেই জানেন আমাজনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) জেফ বেজোস। তাই এ ধরনের পরিস্থিতি ঠেকাতে নিজস্ব একটি নিয়ম অনুসরণ করেন তিনি। বৈঠকের ক্ষেত্রে ‘টু পিৎজা নিয়ম’ প্রয়োগ করেন। দুটির বেশি পিৎজার প্রয়োজন হবে—এতসংখ্যক কর্মী নিয়ে বৈঠক আয়োজনকে নিরুৎসাহিত করেন তিনি। অর্থাৎ বৈঠকে কর্মীর সংখ্যা কম রাখেন তিনি। বেজোস বলেন, তাঁর এই নিয়ম কাজের গতি বাড়ায়। মূল কাজকে বাধাগ্রস্ত করে এমন কাজে সময় ব্যয় না করে কর্মীরা নিজস্ব চিন্তাভাবনা ভাগাভাগি করতে পারেন।

সাবেক মার্কিন ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা।
সাবেক মার্কিন ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা।
ভারমুক্ত হোন মিশেল ওবামার মতো
কাজের দিনটিকে ফলপ্রসূ করার নানা উপায় সম্পর্কে আমরা প্রচুর কথা বলে থাকি। দ্রুততার সঙ্গে পৌঁছাতে চাই লক্ষ্যে। তবে প্রায়ই আমরা ভুলে যাই, সফলতার সূত্রগুলোর মধ্যে কর্মক্ষেত্রের ভেতরে-বাইরে কী ঘটছে, তা-ও অন্তর্ভুক্ত হয়। এ ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামার ব্যক্তিগত কষ্টের অভিজ্ঞতা থেকে উদ্দীপনা পেতে পারেন। তিনি বলেছিলেন, কর্মজীবনে একবার গর্ভপাতের খবরে তিনি প্রচণ্ড বিষণ্ন হয়ে পড়েছিলেন, এটা প্রভাব ফেলছিল তাঁর কাজকর্মে। পরে বিষণ্নতা কাটাতে নিজেই উদ্যোগ নিয়েছিলেন। তিনি নিজেকে বুঝিয়েছিলেন, এখন নিজেকে নিয়ে এবং নিজের মানসিক স্বাস্থ্যের কথা সবার আগে ভাবতে হবে। নিজেকে দায়ী না করে সুখকে প্রাধান্য দিতে হবে। আপনিও এই ভাবনা প্রয়োগ করে নিজেকে ভারমুক্ত করতে পারেন। যা ঘটে গেছে তা নিয়ে খোঁচাখুঁচি না করে নিজেকে গুরুত্ব দিন। এভাবে ভাবলে কর্মক্ষেত্রে চাপ কম অনুভূত হবে। আমরা কোন কোন বিষয়কে প্রাধান্য দেব, তা আরও ভালোভাবে নির্ধারণ করতে পারব।

বিংশ শতাব্দীর শেষদিকের চেয়ে দ্বিগুণ গতিতে গলছে হিমালয়ের হিমবাহ। ৪০ বছরে মহাকাশ পর্যবেক্ষণ কেন্দ্র থেকে তোলা ছবি পর্যবেক্ষণ করে বিজ্ঞানীরা এ কথা বলছেন।

পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, হিমালয়ের বরফ আশঙ্কাজনক হারে গলছে। এমন চলতে থাকলে অন্তত একশ কোটি মানুষ সরাসরি ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

৪০০০ কোটি টাকা মূলধন হারাল ডিএসই
-------
গত সপ্তাহের পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে তিন কার্যদিবসেই দেশের শেয়ারবাজারে দরপতন হয়। এতে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) বাজার মূলধন এক সপ্তাহের ব্যবধানে কমেছে ৪ হাজার কোটি টাকার ওপরে।

গত সপ্তাহে বাজার মূলধনের পাশাপাশি বাজারটির সবকটি মূল্যসূচকের পতন হয়। তবে বাড়ে লেনদেনের পরিমাণ। সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস ৪০০০ কোটি টাকা মূলধন হারাল ডিএসই

শেষে ডিএসইর বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ৯৭ হাজার ৮৭৬ কোটি টাকা, যা তার আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল ৪ লাখ ২ হাজার ১১৪ কোটি টাকা। অর্থাৎ এক সপ্তাহে ডিএসইর বাজার মূলধন কমেছে ৪ হাজার ২৩৮ কোটি টাকা।

খেলা চলছে -
।। আজকের ম্যাচ ।।
।। ইংল্যান্ড বনাম শ্রীলংকা ।।

ইরানে হামলার অনুমতি দিয়ে প্রত্যাহার করলেন ট্রাম্প
[[বিস্তারিত News মেনুতে দেখুন, প্রতিদিন আপডেট রাখুন....]]
নিউজ মেনুঃ http://milimishi.com/news.php

নাসায় যাচ্ছে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন টিম বাংলাদেশ
[[বিস্তারিত News মেনুতে দেখুন, প্রতিদিন আপডেট রাখুন....]]
নিউজ মেনুঃ http://milimishi.com/news.php

সাকিবের সেঞ্চুরির মুহূর্তে কাঁদলেন তার প্রিয়তম স্ত্রী শিশির। ক্যামেরায় ধরা পড়ে সাকিবপত্নীর এই আবেগভরা মুহূর্তটি। সাকিব আল হাসানের অল রাউন্ড নৈপুণ্যে উইন্ডিজের রানের পাহাড় টপকে জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। বল হাতে দুই উইকেটের পাশাপাশি ব্যাট হাতে করেছেন দুর্দান্ত শতক।

মেশিন রিডেবল পাসপোর্টের পর এবার আসছে ই-পসপোর্ট। আগামী ১ জুলাই থেকে নবায়ন বা নতুন পাসপোর্ট করতে গেলেই আপনি পাবেন ই-পাসপোর্ট। তিন ধরনের ফি রাখা হবে ই-পাসপোর্টে। ১০ বছর ও পাঁচ বছর মেয়াদি দুই ধরনের ই-পাসপোর্টের জন্য ফিয়েও থাকছে ভিন্নতা। পাঁচ বছর মেয়াদি ৪৮ পৃষ্ঠার ই-পাসপোর্টের জন্য ফি নির্ধারণ করা হয়েছে ৩৫০০ থেকে ৭৫০০ টাকা পর্যন্ত। আর ১০ বছর মেয়াদি ৪৮ পৃষ্ঠার পাসপোর্টের জন্য ফি নির্ধারণ করা হয়েছে পাঁচ হাজার থেকে ৯ হাজার টাকা পর্যন্ত।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ
[[বিস্তারিত News মেনুতে দেখুন, প্রতিদিন আপডেট রাখুন....]]
নিউজ মেনুঃ http://milimishi.com/news.php

শিরোনাম-2 (সূত্র: যুগান্তর) তারিখ:17-Jun-2019
প্রতিনিয়ত বিশ্বের বিভিন্ন সমুদ্রে জমা হচ্ছে বিভিন্ন কাজে ব্যবহৃত প্লাস্টিক। সম্প্রতি সবচেয়ে বেশি প্লাস্টিক জমা হয়েছে আমেরিকার হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জ ও ক্যালিফোর্নিয়ার মাঝের বিস্তৃত অংশে। বিজ্ঞানীরা এই অংশের প্লাস্টিকের স্তূপের নাম দিয়েছেন ‘গ্রেট প্যাসিফিক গারবেজ প্যাচ’। যা আয়তনে যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম বৃহৎ শহর টেক্সাসের দ্বিগুণ। আর ইউরোপের দেশ ফ্রান্সের তুলনায় আয়তনে তিনগুণ বড়!

পাবলিক পরীক্ষায় পাস নম্বর ৪০ হচ্ছে
[[বিস্তারিত News মেনুতে দেখুন, প্রতিদিন আপডেট রাখুন....]]
নিউজ মেনুঃ http://milimishi.com/news.php

সীমিত পদে কর্মী নেবে মালয়েশিয়া
[[বিস্তারিত News মেনুতে দেখুন, প্রতিদিন আপডেট রাখুন....]]
নিউজ মেনুঃ http://milimishi.com/news.php

ক্ষুদ্রঋণের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের ভাগ্যবদলের কথা বলে অভাবীদেরও রক্ত চুষে নিজেদেরও পরিবর্তন ঘটাচ্ছে এনজিওগুলো। ফলে দারিদ্রতার দুষ্টচক্র থেকে কিছুতেই বেড়িয়ে আসতে পারছেনা গরিব মানুষ এমনটাই মত বিশিষ্টজনদের।
[[বিস্তারিত News মেনুতে দেখুন, প্রতিদিন আপডেট রাখুন....]]
নিউজ মেনুঃ http://milimishi.com/news.php

প্রতিবন্ধীকে নির্যাতন: এখনও ধরাছোঁয়ার বাইরে সাবেক কাস্টমস কর্মকর্তা
[[বিস্তারিত News মেনুতে দেখুন, প্রতিদিন আপডেট রাখুন....]]
নিউজ মেনুঃ http://milimishi.com/news.php

12-Sep-2019 তারিখের কুইজ
(অংশগ্রহণ করেছেন: 3651 জন)
প্রশ্নঃ তিনি ছিলেন একজন ওলন্দাজ-অস্ট্রেলীয় সামরিক কমান্ডো অফিসার। তিনি দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে প্রত্যক্ষ অবদানের জন্য বাংলাদেশ সরকার তাকে বাংলাদেশের চতুর্থ সর্বোচ্চ সামরিক খেতাব বীর প্রতীক প্রদান করে। তিনিই একমাত্র বিদেশী যিনি এই রাষ্ট্রীয় খেতাবে ভূষিত হয়েছেন। আলোচ্য ব্যক্তিটির নাম কি?
(A) হ্যারল্ড উইলসন
(B) উইলিয়াম আব্রাহাম সাইমন ঔডারল্যান্ড
(C) এডওয়ার্ড হীথ
17-Aug-2019 তারিখের কুইজ
(অংশগ্রহণ করেছেন: 3495 জন)
প্রশ্নঃ দুটি দেশের মধ্যে যুদ্ধ হলে উভই দেশই চরম ক্ষতিগ্রস্থ হয়, অর্থনৈতিক ও বানিজ্যিকভাবে বিশ্বথেকে অনেক পিছিয়ে পড়ে। আন্তর্জাতিকভাবে কূটনৈতিক আলোচনা, জাতিসংঘের মধ্যস্থতা ইত্যাদি মাধ্যমে দুটি দেশের মধ্যে যুদ্ধ বন্ধ করে শান্তি আনায়ন সম্ভব। পাকিস্তান থেকে ভারত প্রায় ৫গুন বড়, দুটি দেশেই পারমানবিক শক্তিধর, যেখানে পারমানবিক অস্ত্র নিক্ষেপ করা হয় সেখান প্রায় ৮০০ বছরে কোন বৃক্ষ/কৃষি জন্মায় না। আমরা যুদ্ধ চাই না, আমরা যুদ্ধ করবো ক্ষুধার বিরুদ্ধে, দারিদ্রতার বিরুদ্ধে, পরিবেশ রক্ষার পক্ষে। আয়তনে ভারত বাংলাদেশ অপেক্ষা কত গুন বড়?
(A) প্রায় ২২-২৪গুন
(B) প্রায় ৬০-৬৫ গুন
(C) প্রায় ৯-১১গুন
04-Aug-2019 তারিখের কুইজ
(অংশগ্রহণ করেছেন: 3471 জন)
প্রশ্নঃ সঠিকভাবে জীবন পরিচালনা না করলে তার জীবন খুব দুর্বোধ্য হয়ে উঠে, যথা সময়ের কাজ যথা সময়ে করা, স্বাস্থের প্রতি যত্ন নেওয়া, পরিকল্পিতভাবে খরচ করা এই অভ্যাসগুলো পালন করে জীবনকে সহজ ও সুন্দর করে সাজানো যায়, চিন্তমুক্ত থাকা যায়। নিচের কোন চলচিত্রটি স্বাধীনতার আগে মুক্তি পেয়েছে?
(A) জীবন থেকে নেয়া, পরিচালক: জহির রায়হান
(B) বেদের মেয়ে জোসনা, পরিচালক: তোজাম্মেল হক বকুল
(C) পদ্মা নদীর মাঝি, পরিচালক: গৌতম ঘোষ