About আপডেট থাকি

আবারও বাড়ল বিদ্যুতের দাম
[বিস্তারিত জানতে News মেনুতে ক্লিক/টার্চ করুন]

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে সহিংসতায় তিন দিনে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৪। আড়াইশ এর বেশি মানুষ আহত হয়েছে। মৃত্যুর এই মিছিল মানতে পারছেন না অনেকেই। দিল্লির সহিংসতা নিয়ে এক প্রতিক্রিয়ায় রবীন্দ্র-নজরুল সংস্কৃতির কথা মনে করিয়ে দিলেন পশ্চিমবঙ্গের যাদবপুরের তৃণমূল সাংসদ মিমি চক্রবর্তী।

তিনি টুইট করে লিখেছেন, 'আজ ভালো হয়েছে কবি গুরু তুমি বেঁচে নেই। আজ ভালো হয়েছে কবি নজরুল ইসলাম তুমি বেঁচে নেই। কারণ মোরা একই বৃন্তে দুটি কুসুম হিন্দু-মুসলমান আর নই। মোরা রাম আর রহিম ভাই ভাই আর নই। যেটা আমরা এখন, সেটা আর যাই হোক মানুষ আর নই।'

মুখ খুলছেন টলিউডের অভিনেতা থেকে পরিচালকরা। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের রচিত কবিতার অংশ উদ্ধৃত করেছেন সৃজিত মুখার্জি। তিনি লিখেছেন, 'অহরহ তব আহ্বান প্রচারিত, শুনি তব উদার বাণী। হিন্দু বৌদ্ধ শিখ জৈন পারসিক মুসলমান খৃস্টানী। পূরব পশ্চিম আসে তব সিংহাসন-পাশে প্রেমহার হয় গাঁথা। জনগণ-ঐক্য-বিধায়ক জয় হে ভারতভাগ্যবিধাতা! জয় হে, জয় হে, জয় হে, জয় জয় জয় জয় হে।'
অন্যদিকে দিল্লির সংঘর্ষ নিয়ে বাংলা, হিন্দি ও ইংরেজি তিন ভাষাতেই কবিতা লিখেছেন পঞ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী। নিজের ফেসবুক পেজে কবিতাটি পোস্ট করেন তিনি। এর আগে নুসরাত জাহান টুইট করে লিখেছেন, দুঃখিত, শোকাহত ও বেদনাদায়ক। আমার দেশ জ্বলছে। আমরা মানুষ, এটা ভুলে গেলে চলবে না। দয়া করে গুজব, ভুয়া খবর ও ঘৃণা ছড়াবেন না। সূত্র : জিনিউজ।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক

বাংলাদেশের ওমরাহ যাত্রীদের নিচ্ছে না বিমান সংস্থাগুলো
[বিস্তারিত জানতে News মেনুতে ক্লিক/টার্চ করুন]

দিল্লি সংঘর্ষ: সরকারের সমালোচনাকারী বিচারকের বদলি

দিল্লি সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩৪
[বিস্তারিত জানতে News মেনুতে ক্লিক/টার্চ করুন]

মশা যেন আপনাদের ভোট খেয়ে না ফেলে : প্রধানমন্ত্রী
[বিস্তারিত জানতে News মেনুতে ক্লিক/টার্চ করুন]

সকলকে অভিনন্দন!!!
মিলিমিশি’তে আজ কুইজের অংশগ্রহণকরী 10K+
মিলিমিশি আপডেট হওয়া ও সকলের পেমেন্ট গেটওয়ে সক্রিয় হওয়ায় সবাই পেমেন্ট পেতে শুরু করেছে, ফলে নতুন+পুরাতন সবাই বেশি বেশি এ্যাকটিভ হচ্ছে।
--
ধন্যবাদান্তে,
কর্তৃপক্ষ

কিশোরগঞ্জে ফের ২ ট্রেন মুখোমুখি, অল্পের জন্য রক্ষা পেলেন যাত্রীরা
এগারসিন্ধুর এক্সপ্রেসের ট্রেন মানিকখালী স্টেশন অভিমুখে আসলে এটিকে ওই দুই নম্বর লাইনেই প্রবেশের সিগন্যাল দেয় স্টেশনের কয়েন ম্যান। আর এ কারণে ওই ট্রেনটিও যথারীতি স্টেশনের দুই নম্বর লাইনে ঢুকে পড়ে।

কিন্তু নিকটবর্তী হয়ে চালক একই লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা লোকাল ট্রেনের লাইটের আলো দেখতে পেয়ে দিশেহারা হয়ে ব্রেক কষেন।

এতে ট্রেনটি কয়েক গজের ব্যবধানে একই লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা লোকাল ট্রেনের মুখোমুখি হয়ে রক্ষা পায়। রাত সাড়ে ১১ টার দিকে লাইন পরিবর্তন করে ট্রেন দুটি নিজ নিজ গন্তব্যের উদ্দেশে যাত্রা করে।

[বিস্তারিত জানতে News মেনুতে ক্লিক/টার্চ করুন]

মুজিব শতবর্ষের অনুষ্ঠানে মোদিকে অংশ নিতে দেব না: ভিপি নুরুল
[বিস্তারিত জানতে News মেনুতে ক্লিক/টার্চ করুন]

কেন্দ্রীয় নয়, সাত কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো অন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতেও গুচ্ছ ভিত্তিতে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। সমমনা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে চারটি গুচ্ছে ভাগ করে এই ভর্তি পরীক্ষা নেওয়া হবে। এর মধ্যে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে একটি গুচ্ছ করে, প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর জন্য একটি, কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর জন্য একটি এবং সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর জন্য আরেকটি গুচ্ছ করে এই ভর্তি পরীক্ষা হবে।

স্থগিত নয়, বাতিলই হয়ে যেতে পারে এবারের অলিম্পিক
[বিস্তারিত জানতে News মেনুতে ক্লিক/টার্চ করুন]

উত্তাল দিল্লিতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২০

ট্রেনে নিষিদ্ধ হলো উন্মুক্ত খাবার বিক্রি

কাল থেকে থাকবে না বৃষ্টি, বাড়বে তাপমাত্রা

ঢাকাকেন্দ্রিক নিয়োগ পরীক্ষায় বাড়ছে বেকারের যন্ত্রণা
নিয়োগ পরীক্ষাকে কমপক্ষে বিভাগীয় শহরকেন্দ্রিক করলে এই যুবকদের পকেটটি একটু হলেও কম কাটা পড়ে। আর পরীক্ষার ফিস তো কমাতেই হবে। বেকারত্বকে পুঁজি করে রাষ্ট্র ব্যবসা করতে পারে না। এটা কল্যাণকামী রাষ্ট্রের বৈশিষ্ট্য নয়।

প্রশ্নঃ ১৯০০-এর দশকে নির্বাক এবং ১৯৫০-এর দশকে সবাক চলচ্চিত্র নির্মাণ ও প্রদর্শন শুরু হয়। চলচ্চিত্রের উৎপত্তি ১৯১০-এর দশকে হলেও এখানে পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নিয়ে আগ্রহের সৃষ্টি হয়েছে ১৯৫০-এর দশকেই। “বেদের মেয়ে জোসনা আমায় কথা দিয়েছে” গানটিতে নিচের কোন শিল্পী কন্ঠ দিয়েছেন?
(A) কুমার বিশ্বজিৎ
(B) এন্ডু কিশোর
(C) খালিদ হাসান মিলু
-----

চিত্রনায়ক সালমান শাহ'র মৃত্যুর কারণ আত্মহত্যা উল্লেখ করে তদন্ত প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। মঙ্গলবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে ৬০০ পৃষ্ঠার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন পিবিআইয়ের পরিদর্শক সিরাজুল ইসলাম।

এ বিষয়ে আদালত পুলিশের নন-জিআর শাখার সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা পুলিশের এসআই আনিছুর রহমান সাংবাদিকদের জানান, আগামীকাল (বুধবার) ঢাকা মহানগর হাকিম বাকী বিল্লাহর আদালতে ওই তদন্ত প্রতিবেদনটি উপস্থাপন করা হবে। তবে তদন্ত প্রতিবেদনের গ্রহণযোগ্যতার বিষয়ে নির্ধারিত তারিখ ৩০ মার্চ শুনানি হবে।

আদালতে পাঠানো ওই তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চিত্রনায়ক সালমান শাহ ও শাবনূরের মধ্যে অতিরিক্ত অন্তরঙ্গতা তৈরি হয়। সালামানের স্ত্রী সামিরা চট্রগ্রামে গেলে নায়িকা শাবনূর দুইদিন সালমান শাহের বাসায় আসে। একদিন সারারাত ছিল, অন্যদিন রাত ১২টার দিকে চলে যায়। সামিরা চট্রগ্রাম হতে এসে জানতে পারে যে, নায়িকা শাবনূর বাসায় এসেছিল। সালমানের সঙ্গে শাবনূরের এই অন্তরঙ্গতা নিয়ে স্ত্রী সামিরার সাহিত ব্যাপক দাম্পত্য কলহের সৃষ্টি হয়। সালমান স্ত্রী সামিরাকে খুব ভালোবাসতো। পাশাপাশি শাবনূরের সঙ্গে ঘনিষ্ট সম্পর্ক বাজয় রাখতো। এ কারণে দাম্পত্য কলহের এক পর্যায়ে সালমান শাহ জটিল সম্পর্কের বেড়াজালে পড়ে যায়।

এছাড়া, ১৯৯১ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে ফোন করা নিয়ে মায়ের সঙ্গে ঝগড়ার জেরে নিজ বাসায় সে ইনোক্টিন ট্যাবলেট খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। এছাড়া ১৯৯২ সালে নভেম্বর মাসে কেয়ামত থেকে কেয়ামত ছবির শুটিংয়ের সময় সামিরার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কের বিষয়টি নিয়ে তার মায়ের সঙ্গে ঝগড়া করে সালমান শাহ স্যাভলন খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে।
[বাংলাদেশ প্রতিদিন থেকে সংগ্রহীত]

করোনা নিয়ে সুখবর দিচ্ছে ইরান
[বিস্তারিত জানতে News মেনুতে ক্লিক/টার্চ করুন]

ভুয়া জন্মদিন পালন: খালেদার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন
[বিস্তারিত জানতে News মেনুতে ক্লিক/টার্চ করুন]

উত্তাল দিল্লিতে ১৪৪ ধারা জারি, নিহত ৭
সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে সমর্থক ও বিরোধীদের মধ্যে উত্তাল ভারত। মঙ্গলবার সকাল থেকে ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠে দিল্লির ব্রহ্মপুর এলাকা। ইতোমধ্যে সংঘর্ষে এক পুলিশ কনস্টেবলসহ ৭ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। আহত অন্তত ১০৫ জন।

আরও বেপরোয়া করোনাভাইরাস, বেরিয়ে এল সংক্রমণের নতুন তথ্য
[বিস্তারিত জানতে News মেনুতে ক্লিক/টার্চ করুন]

পাপিয়াকে গ্রেফতার করতে প্রধানমন্ত্রীই নির্দেশ দিয়েছিলেন
[বিস্তারিত জানতে News মেনুতে ক্লিক/টার্চ করুন]

মাথাব্যথা দূর করার ঘরোয়া উপায়
কাজের চাপে বিশ্রাম না নেয়ার কারণে অনেক সময় মাথাব্যথা হয়ে থাকে। তবে মাথা ধরলে অবশ্যই ঘুমাতে হবে। আর দিন দিন যদি মাথাব্যথা বাড়তেই থাকে, তবে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।


তবে মাথা ধরলে চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া বেদনানাশক ওষুধ খাওয়া মোটেও ঠিক নয়। এসব ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকে। তবে ঘরোয়া উপায়ে দূর করতে পারেন মাথাব্যথা। আসুন জেনে নিই কীভাবে ঘরোয়া উপায়ে দূর করবেন মাথাব্যথা-

১. রগের দুটো পাশ ও ঘাড়ের কাছে যদি খানিক ক্ষণের জন্য আঙুলের ডগা দিয়ে ম্যাসাজ করেন, তবে আরাম পাবেন ও ক্লান্তি দূর হবে। ক্লান্তির কারণে মাথা ধরলে এই ম্যাসাজ খুব কাজে দেয়।

২. অতিরিক্ত আলোর কারণে অনেক সময় মাথাব্যথা হয়ে থাকে। তাই মাথা যন্ত্রণা করলে ঘরের আলো কমিয়ে দিন।

৩. কম্পিউটার স্ক্রিন, ল্যাপটপ বা মোবাইল ফোন থেকে দূরে থাকুন। বাইরে থাকলে ভালো মানের রোদচশমা ব্যবহার করুন।

৪. আঙুলের ডগায় অ্যাসেনশিয়াল অয়েল লাগিয়ে কপালে আর রগে ম্যাসাজ করুন। ল্যাভেন্ডার বা পিপারমিন্টের মতো কোনো সুগন্ধি ফ্লেভারের তেল দিয়ে ম্যাসাজ করলে মাথার যন্ত্রণা অনেকটা কমে।

৫. খেতে পারেন চা-কফি। চা বা কফিতে উপস্থিত ক্যাফিন মাথা যন্ত্রণা কমাতে ভালো কাজ করে। আর কালো চায়ে আদা-লবঙ্গ ও মধু মিশিয়ে খেলে মাথা যন্ত্রণায় আরাম পাওয়া যায়।

তথ্যসূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

ট্রাম্প দিল্লি আসার আগে ব্যাপক সংঘর্ষ, এক পুলিশ নিহত
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সফরের মধ্যেই ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন (সিএএ) বিরোধীদের সঙ্গে সংঘর্ষে এক পুলিশ সদস্য নিহত হয়েছে বলে এনডিটিভি জানিয়েছে।

সোমবার সকালে উত্তর-পূর্ব দিল্লির ভজনপুরা, মৌজপুর ও জাফরাবাদে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে গত ২৪ ঘটনায় ওই অঞ্চলটিতে দ্বিতীয়বার সংঘর্ষের ঘটনা ঘটল।

খবরে বলা হয়, এদিন দিল্লির একাধিক স্থানে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের সমর্থক ও বিরোধীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এসময় তারা পরস্পরকে লক্ষ্য করে ইট-পাথর নিক্ষেপ করে। যানবাহন ও দোকানপাটে অগ্নিসংযোগ এবং ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনায় দিল্লির একাংশ রণক্ষেত্রে পরিণত হয়।

সমন্বিত ভর্তি পরীক্ষায় না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সভায় উপস্থিত থাকা অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের একাধিক সদস্য এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। সোমবার বিকাল তিনটায় অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের সভা শুরু হয়।

বিলগেটসের চিঠির উত্তরে যা লিখলেন চীনের প্রেসিডেন্ট

বিল গেটস তার চিঠিতে লিখেছিলেন, চীনকে মহামারী সংক্রান্ত গবেষণা, জরুরি পদক্ষেপ গ্রহণ, ওষুধ, ভ্যাকসিন এবং ডায়াগনস্টিক্সের বিকাশে সহায়তা করতে জরুরি ভিত্তিতে ১০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার পর্যন্ত তহবিল দিতে প্রস্তুত তার প্রতিষ্ঠান।
বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের লেখা চিঠির উত্তরে শি জিং পিং বলেছেন, আপনার চিঠি পেয়ে ভালো লাগল। করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) বিরুদ্ধে চীনের লড়াইয়ের সঙ্কটপূর্ণ মুহূর্ত এটি। বিল ও মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের উদারতা এবং এই মুহূর্তে চীনের জনগণের প্রতি সহমর্মিতা প্রকাশ করার বিষয়টি দারুণ ভালো লেগেছে আমার।

ভারত সফরে ট্রাম্প, নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তায় তিন শহর

ঘুরতে গেলেও সাবধান থাকুন, মোটরসাইকেল আটকিয়ে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত, তরুণ নিহত

রাজধানীর হাতিরঝিলে দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে শিপন হাসান (১৮) নামে এক তরুণ নিহত হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছে শিপনের বন্ধু মানিক (১৬)।


শিপনের লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

রোববার রাত সাড়ে ৮টায় হাতিরঝিলের বেগুনবাড়ি ব্রিজ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। বেগুনবাড়ি দিয়ে দুই বন্ধু মোটরসাইকেল চালিয়ে যাওয়ার সময় গতিরোধ করে কয়েক যুবক। এর পর প্রথমে মানিককে ছুরিকাঘাত করে তারা। পরে মোটরসাইকেলের পেছনে থাকা বন্ধু শিপন হাসানকেও এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে।
সূত্র: যুগান্তর

তাহসান আবারও বিয়ে করছেন বলে খবর প্রকাশ হয়েছে। কাকে বিয়ে করছেন তাহসান? সম্প্রতি কয়েকটি সংবাদমাধ্যম খবর প্রকাশ করে, ঢাকার বনানী অঞ্চলের একটি রেস্তোরাঁয় এক সংবাদ পাঠিকার সঙ্গে সময় কাটাতে দেখা যায় তাহসানকে। অনেকেই বলছেন, ওই নারীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছেন তাহসান।

মিলিমিশি কুইজঃ
---
বাংলাদেশটা আসলেই অপরূপ! আমরা বাংলাদেশের সৌন্দয্য সম্পর্কে জানিনা বিধায় দেশের বাহিরে ঘুরতে যাই।পাহার, ঝণা, অপরূপ চা বাগান, নদী, সুন্দরবন, সমুদ্র ইত্যাদি দিয়ে অপরূপ সৌন্দয্য মোড়ানো ৬৪টি জেলা। আমরা বাংলাদেশের ৬৪টি জেলাই দেখে শেষ করতে পারি না, অথচ অবসর সময় কাটাতে চলে যাই দেশের বাহিরে। বাংলাদেশে একমাত্র গরম পানির ঝর্ণা কোথায় অবস্থিত?
(A) সীতাকুণ্ড পাহাড়, চট্টগ্রাম
(B) হীমছড়ি, কক্সবাজার
(C) তাজিংডং, বান্দরবন
---
কুইজ অপশন থেকে কুইজের উত্তর প্রদান করুন।
‘‘মিলিমিশি’ সম্পুর্ণ নিজস্ব প্রোগ্রামিং করে তৈরী করা বাংলাদেশী সোসাল নেটওয়ার্ক। ‘মিলিমিশি’তে বন্ধুদের আমন্ত্রণ জানিয়ে একে সমৃদ্ধ করুন।
**********
[ এখানে আপনার সকল তথ্য ও গোপনীয়তা শতভাগ নিরাপদ ]

নেত্রী সেজে পতিতা ও মাদক ব্যবসা
যুব মহিলা লীগের পদ বাগিয়ে অভিজাত এলাকায় জমজমাট নারী ব্যবসাসহ ভয়ঙ্কর সব অপরাধমূলক কর্মকান্ডে জড়িত ছিলেন শামীমা নূর পাপিয়া ওরফে পিউ। নিজেকে পরিচয় দিতেন ক্ষমতার রাঘববোয়ালদের কর্মী হিসেবে। রাজনৈতিক কর্মসূচিতে গিয়ে নেতাদের ফুল দিয়ে সেই ছবিরও অপব্যবহার করতেন তার সব খারাপ কাজে। শুধু গত এক মাসেই এই নারী রাজধানীর অভিজাত এক পাঁচ তারকা হোটেলে বিশাল অঙ্কের বিল পরিশোধ করেছেন। আর এ অর্থ খরচের কারণেই গোয়েন্দাদের চোখ পড়ে পাপিয়ার ওপর। একের পর এক বেরিয়ে আসতে থাকে তার সব অপকর্মের কাহিনি।

জানা গেছে, সব পাঁচ তারকা হোটেলেই ছিল পাপিয়ার এসকর্ট ব্যবসা। আলোচিত এই নারী হচ্ছেন নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাাদক। তিনি নিজেকে কেন্দ্রীয় নেত্রী হিসেবেও পরিচয় দিতেন। সর্বশেষ প্রচার করতেন সংরক্ষিত এমপি পদ পাচ্ছেন। কিন্তু তা না পেলেও থেমে ছিল না তার অপরাধমূলক কাজকর্ম। গতকাল সকালে স্বামী মফিজুর রহমান চৌধুরী সুমন, সাবিক্ষর খন্দকার (২৯), শেখ তায়্যিবা (২২)সহ আরও দুজন বিদেশে যাওয়ার প্রাক্কালে বিমানবন্দর এলাকা থেকে তাকে আটক করেছে র‌্যাব। শুরুতে পাপিয়া প্রথমে নিজের দাপুটে অবস্থানের পরিচয় দেন। তবে কোনো কিছুতে গুরুত্ব না দিয়ে পাপিয়ার কাছ থেকে র‌্যাব কর্মকর্তারা উদ্ধার করতে থাকেন অনেক চাঞ্চল্যকর তথ্য।

ওবায়দুল কাদের-মির্জা ফখরুলের সেই আলোচিত ফোনালাপ ফাঁস
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের ফোনালাপ নিয়ে আলোচনা চলছে সর্বমহলে। গত ১৩ই ফেব্রুয়ারি টেলিফোনে ৭ মিনিট কথা বলেন ফখরুল। পরের দিন ওবায়দুল কাদের নিজেই ওই ফোনালাপের বিষয়টি সাংবাদিকদের জানান। এ নিয়ে সর্বত্র কৌতুহলের সৃষ্টি হয়।


ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে কথা বলেছেন ফখরুল। প্যারোল নিয়েও কথা হয়েছিল।

মির্জা ফখরুল জবাবে দাবি করেন যে, প্যারোল নিয়ে কোন কথা হয়নি। আসলে কি কথা হয়েছিল? তাদের সেই কথোপকথনটি তুলে ধরা হল।

মির্জা ফখরুল: কাদের ভাই আসসালামুআলাইকুম।

ওবাদুল কাদের: ওলাইকুম আসসালাম।

মির্জা ফখরুল: ভাই কেমন আছেন..?

ওবায়দুল কাদের: হুম, আছি মোটামোটি ভাল।

মির্জা ফখরুল: আপনার শরীরের অবস্থা এখন কেমন আছে?

ওবায়দুল কাদের: আছে মোটামোটি ভাল। কয়েকদিন ধরে শরীরটা ভাল যাচ্ছে না।

মির্জা ফখরুল: চেকাপ করবেন, অসুখের ওপর খেয়াল রাখবেন।

ওবায়দুল কাদের: হুম, নিয়মিত চেকআপ করাচ্ছি। ডাক্তারের সঙ্গে যোগাযোগ আছে।

মির্জা ফখরুল: আপনাকে একটি বিষয় অবহিত করার জন্য ফোন দিয়েছি। আপনি জানেন, আমাদের ম্যাডাম খুবই অসুস্থ। দুইদিন আগে তার পরিবারের সদস্যরা তার সঙ্গে দেখা করে এসেছেন। তাদের সঙ্গে আমার আলাপ হয়েছে। তারা আমাকে বলেছেন, ম্যাডামের শারীরিক অবস্থা খুবই সংকটজনক। যা আপনাকে ভাষায় প্রকাশ করতে পারবো না।

ওবায়দুল কাদের: হাসপাতালের চিকিৎসকরা বলেছেন যে, তার অবস্থা স্থিতিশীল। আপনারা বলছেন, অন্য কথা। তাহলে কার কথা শুনবো। মেডিকেলের রিপোর্টের বাইরে যাওয়ার আমাদের কোন সুযোগ নেই। তার বিষয়টি সম্পূর্ণ আদালতের এখতিয়ার। আদালতের ওপরতো আমাদের কোন হস্তক্ষেপ করার নাই। এটা আমরা বার বার বলছি এবং এখনও বলছি।

মির্জা ফখরুল: জি.., আপনি, আমি, জানি যে, কী মামলায় তাকে সাজা দেয়া হয়েছে।

ওবায়দুল কাদের: কী মামলা মানে? এটাতো আমাদের আমলের সময় মামলা নয়, এই মামলাটি হয়েছে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে। মামলাটি পুরনো। দীর্ঘদিন ধরে বিচার চলছে। একদিনেও বিচার হয়নি। দীর্ঘদিন বিচার চলার পর ওই মামলার রায় হয়েছে। আদালত রায় দিয়েছে, বিষয়টি আদালতের ব্যাপার। এখানে সরকারের কিছু করার নেই। আর যে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে তার চিকিৎসা চলছে সেটি বিশ্বমানের চিকিৎসা। আমার চিকিৎসাও সেখানে হচ্ছে।

মির্জা ফখরুল: আমরা আদালতে বার বার জামিনের জন্য আবেদন চাইতে গেছি। আদালত দেয়নি। আপনি বলেন, বিচার বিভাগ কী পুরোপুরি স্বাধীন?

ওবায়দুল কাদের: বিচার বিভাগ পুরোপুরি স্বাধীন রয়েছে। এই বিচার বিভাগের প্রতি দেশের মানুষের আস্থা রয়েছে। আদালত স্বাধীন।

মির্জা ফখরুল: হুম...., আমরা বার বার আদালতে গেছি....কিন্তু, আদালত ম্যাডামকে জামিন দেয়নি। বিষয়টি আপনারা মানবিক দৃষ্টিতে দেখেন। তিনি তিন বারের প্রধানমন্ত্রী। সাবেক রাষ্ট্রপতির স্ত্রী। বাংলাদেশের বড় দলের সর্বোচ্চ নেতা। আপনারা মানবিক দৃষ্টিতে দেখেন। আপনাদের সুদৃষ্টি প্রয়োজন।

ওবায়দুল কাদের: হুম.., আমরাতো বলেছি যে, আমরা আদালতের বাইরে যেতে পারবো না। এর বাইরে যাওয়া সরকার ও দলের কোন এখতিয়ার নেই। আপনারা আদালতে যান। আদালতেই আপনাদের সামনের শেষ রাস্তা।

আরেকটি রাস্তা আছে যে, তাকে প্যারোল চাইতে হলে আইন অনুযায়ী তাকে দোষ স্বীকার করে সরকারের কাছে আবেদন করতে হবে। প্যারোলের আবেদন আসলে সরকার বিষয়টি ভেবে দেখবে। আমাদের গণ্ডির মধ্যে থাকতে হবে....। এর বাইরে যাওয়ার কোন সুযোগ নেই।

মির্জা ফখরুল: আমরা যে, প্যারোল চাইবো তা আপনাদের এই মামলা নিয়ে যে সব কাণ্ড করলেন তা ভরসা করতে পারছি না। প্যারোল চাইলেই যে, তিনি মুক্তি পাবেন তা ভরসা করা যাচ্ছে না। তার দল থেকে প্যারোল চাইতে পারে। তবে আমরা বিষয়টি মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে দেখার জন্য আপনাদের কাছে দাবি করছি। আপনারা বিষয়টি মানবিক হিসাবে দেখেন। ম্যাডাম খুব অসুস্থ। হঠাৎ একটি দুর্ঘটনা ঘটে গেলে এর দায় কে নিবে বলেন? আপনারা বিষয়টি মানবিক দৃষ্টিকোণে দেখেন।

ওবায়দুল কাদের: বিষয়টিতো মানবিকভাবেই দেখা হচ্ছে। তার ভাল চিকিৎসা হচ্ছে, উন্নত হাসপাতালে। আপনারা আদালতে যান। আদালতেই এর সমাধান দিবে।

মির্জা ফখরুল: ওকে, কাদের ভাই ভাল থাকেন।

ওবায়দুল কাদের: আপনিও ভাল থাকেন।
সূত্রঃ দৈনিক ইত্তেফাক/এএএম

কচুরিপানা খাবার উপযোগী কি না তার নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা চলছে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। পরিকল্পনা মন্ত্রীর কচুরিপানা বিষয়ক মন্তব্যকে কেন্দ্র করে সৃষ্টি হওয়া বিতর্ক প্রসঙ্গে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, কচুরিপানা পরীক্ষা নিরীক্ষা চলছে। ফুড ভ্যালু পাওয়া গেলে ভবিষ্যৎ বলে দেবে কী করতে হবে।

প্রতারণা, অবৈধ অর্থ পাচার, জাল টাকা সরবরাহ, মাদক ব্যবসা ও অনৈতিক কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে দুই নারীসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। তাঁরা হলেন নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক শামীমা নুর পাপিয়া (২৮), তাঁর স্বামী মফিজুর রহমান (৩৮), মফিজুরের ব্যক্তিগত সহকারী সাব্বির খন্দকার (২৯) ও পাপিয়ার ব্যক্তিগত সহকারী শেখ তায়্যিবা (২২)।

শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দিয়ে নয়াদিল্লিতে যাওয়ার সময় বহির্গমন গেট থেকে মফিজুর ও সাব্বিরকে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর তাঁদের কাছ থেকে তথ্য পেয়ে রাজধানীর হোটেল ওয়েস্টিন থেকে পাপিয়া ও তায়্যিবাকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-১–এর একটি দল। পরে এদের কাছ থেকে জাল টাকা, ডলারসহ প্রায় সাড়ে ৯ লাখ টাকা জব্দ করা হয়েছে।
[প্রথমআলো]

সুন্দরী নারীর ফাঁদে ফেলে যুবককে অপহরণ, আটক ৪
বিস্তারিত মিলিমিশি’র News মেনু পড়ুন, নিজেকে সময়ের সাথে আপডেট রাখুন...

লম্বা হওয়ার গোপন কৌশলঃ
---
6টি সহজ স্বাভাবিক উপায়ে উচ্চতা বৃদ্ধি:

1. দুধ পান আপনাকে লম্বা হতে সাহায্য করবে কারণ ক্যালসিয়াম আপনার শরীরের হাঁড় এর বৃদ্ধি ঘটায়। আমেরিকায় গরুর খাবারের মধ্যে বিভিন্ন হরমোন ইনজেকশন দেওয়া হয় যার মাধ্যমে হরমোনের মাত্রা বৃদ্ধি হয় এবং সেই প্রকিয়াজাতকরণ দুধ হয় সাধারণ দুধ এর বিকল্প।

2. নিয়মিত কিছু নির্দিষ্ট ব্যায়াম (ওজন উদ্ধরণ) হরমোন (HGH) বৃদ্ধি করে। এটি বৃদ্ধি সংক্রান্ত হরমোনের মাত্রা আরও উন্নত করার জন্য বহুল পরিচিত এবং পদ্ধতি খুবই কার্যকর। অতিরিক্ত পেশী আপনাকে আরও সাহায্য করবে আকর্ষণীয় চেহারার অধিকারী হতে।

3. তীব্র sprinting ব্যায়াম মানব বৃদ্ধির হরমোনে একটি বিস্ফোরণ ঘটায়। এছাড়া মানুষের হরমোনকে আরও উন্নত করে। যে কোনও কঠিন শারীরিক ব্যায়াম আপনাকে লম্বা হতে সাহায্য করবে। তবে অবশ্যই সেটা ২১বছর বয়স হওয়ার পর।

4. Niacin supplementation: Niacin একটি প্রাকৃতিক ভিটামিন নামক ভিটামিন B3। গবেষণা থেকে জানা যায়, ৫০০ গ্রাম নিয়াসিন নেওয়া মানুষের থেকে সাধারণ মানুষের বৃদ্ধি কম ঘটে।

5.মানসিক চাপ কমান: স্ট্রেস বা মানসিক চাপ যা হচ্ছে আপনার লম্বা বৃদ্ধি হওয়ার ক্ষেত্রে একটি বাঁধা। যাতে আপনার হরমোনের মাত্রা কমে যায় এবং করটিসল উৎপাদিত হয়। ভিটামিন C সম্পূরকসমূহ যা করটিসল কমাতে জোর সহায়তা করে।

6. ঘুম: কমপক্ষে ৮ ঘণ্টা ঘুমানো । এটি সবচেয়ে সহজ এবং অনেক কার্যকরী উপায়। সঠিক এবং সুন্দর ভাবে ঘুমানো আপনার দেহের স্বাভাবিক বৃদ্ধি মাত্রা আরও বাড়িয়ে তোলে।

প্রতিদিন মিলিমিশি’র News মেনু পড়ুন, নিজেকে সময়ের সাথে আপডেট রাখুন...

প্রতিদিন মিলিমিশি’র News মেনু পড়ুন, নিজেকে সময়ের সাথে আপডেট রাখুন...

বিএনপির মিছিলে পুলিশের লাঠিচার্জ, রিজভীসহ আহত ১০
প্রতিদিন মিলিমিশি’র News মেনু পড়ুন, নিজেকে সময়ের সাথে আপডেট রাখুন...


প্রতিদিন মিলিমিশি’র News মেনু পড়ুন, নিজেকে সময়ের সাথে আপডেট রাখুন...

মিলিমিশি মোবাইল এ্যাপ ডাউনলোড লিংকঃ
https://milimishi.com/appsky/milimishi_2020_2020.apk
(ফাইল সাইট মাত্র 4.5 mb)

ল্যাব থেকে করোনা ছড়ানো ও চীনের গোয়েন্দার 'স্বীকারোক্তি'
আজকের কালের কন্ঠের খবরঃ
প্রথম থেকেই বিজ্ঞানীরা বলে আসছেন, বাদুড়, সাপ, ইঁদুর ও বনরুইয়ের মাধ্যমে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে থাকতে পারে। তবে বরাবরই করোনাভাইরাসের উৎপত্তি বাদুড়ের শরীরে বলেই মনে করছেন সবাই।

কিন্তু উহান শহরের একটি ল্যাব থেকে 'জীবাণু অস্ত্র' করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার বিষয়ে চীনের সেনাবাহিনীর গোয়েন্দা বিভাগের একজন কর্মকর্তাকে উদ্ধৃত করা হচ্ছে। তাতে বলা হয়েছে, চীনের সেনাবাহিনীর গোয়েন্দা বিভাগের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা আমি। করোনাভাইরাস ছড়িয়ে যাওয়ার ব্যাপারে সঠিক তথ্য আমি জানি। গণমাধ্যম যে তথ্য দিচ্ছে, তার চেয়ে অনেক খারাপ হতে পারে পরিস্থিতি।

পরে বলা হচ্ছিল, চীনের কর্মকর্তাদের কাছ থেকে মার্কিন গোয়েন্দারা জীবাণু অস্ত্র কিনে নিতে এসে শেষ মুহূর্তে দ্বন্দ্বের মধ্যে গুলি চালানোর ঘটনা ঘটে। এতে করে করোনাভাইরাস লিক হয়ে ছড়িয়ে যায়।

28-Feb-2020 তারিখের কুইজ
(অংশগ্রহণ করেছেন: 3079+)
প্রশ্নঃ উত্থান-পতনের সমষ্টিই হল জীবন। চূড়ান্ত বিজয় অর্জন করতে গেলে অনেক বাধার সম্মুখিন হতে হয়, কিন্তু প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকলে একটু বিলম্বে হলেও বিজয় অবধারিত। একটি বানর ১০ফুট একটি তৈলাক্ত বাঁশের মাথায় উঠতে শুরু করল, সে প্রতি লাফে ২ফুট উচ্চতায় উঠে এবং ১ফুট নিচে নেমে পড়ে, উক্ত বাঁশের মাথা স্পর্শ করতে তার কতটি লাফ দিতে হবে?
(A) 10
(B) 9
(C) 5